(দিনাজপুর২৪.কম) দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রচণ্ড অসুস্থতার কারণে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আজ সোমবার আদালতে হাজির হননি। তবে তাঁর পক্ষে করা হাজিরা পরোয়ানা (প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট বা পিডব্লিউ) প্রত্যাহারের আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। এছাড়া খালেদা জিয়া এ মামলায় জামিন বাড়ানোর আবেদন করেন। আদালত আগামী ২৮ জুন পর্যন্ত তাঁর জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। সোমবার (৪জুন) ঢাকা বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান এ আদেশ দেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত বলেন, ‘খালেদা জিয়া অসুস্থতাজনিত কারণে আনফিট, তাই তাঁকে আদালতে হাজির করা হয়নি। কারা কর্তৃপক্ষ আদালতে এই প্রতিবেদন দিয়েছে।’ মামলার আরেক আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না চিকিৎসা ও ওমরাহ হজ পালনের জন্য এক মাসের সময় আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির অভিযোগের মামলায় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। সেই থেকে তিনি কারাবন্দি রয়েছেন পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে। খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা বলছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অন্তত আরও ছয়টি মামলা রয়েছে; যেগুলোতে জামিন পেলেই কেবল তিনি মুক্তি পেতে পারেন। এর মধ্যে কুমিল্লায় তিনটি ও নড়াইলে একটি, বাকিগুলো ঢাকার। -ডেস্ক