এম. আর. মিজান, (দিনাজপুর২৪.কম) সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সহায়ক সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমেই দেশে গণতন্ত্র পুনঃ প্রতিষ্ঠিত করা হবে। আওয়ামী বাকশালী সরকারের সকল প্রকার অন্যায়, জুলুম, নির্যাতন উপেক্ষা করে আজ রাজধানী ঢাকার রাজপথে জনতার যে ঢল নেমেছে, তা প্রমাণ করে দেশে গণতন্ত্র পুনঃ প্রতিষ্ঠা হবেই হবে। তারুণ্যের অহঙ্কার তারেক রহমানের দিক-নির্দেশনা মোতাবেক আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ থেকে আগামীতে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা ও নির্বাচনের মাধ্যমেই জাতির মুক্তি নিশ্চিত করতে হবে। কয়লা ও পাথর খনিসহ সারা দেশে লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করলেও সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের মেয়রকে জেলে নেয়া হয়েছিল। অনেক ষড়যন্ত্র হলেও শেষ পর্যন্ত আমাদের বিজয় হবেই। সরকার মনে করছে তারা আজীবন ক্ষমতায় থেকে লুটপাট আর জুলুম নির্যাতন চালিয়েই যাবে। কিন্তু তাদের মনে রাখা প্রয়োজন, গাদ্দাফী, সাদ্দামসহ আমাদের দেশে স্বৈরাচার এরশাদসহ কোন সরকারই আজীবন টিকে থাকতে পারেনি। বর্তমান অবৈধ সরকারও পারবে না। দিনাজপুরবাসী ইতোমধ্যে বড় ময়দানের ঈদ জামাতসহ বিভিন্নভাবে সরকারকে হলুদ কার্ড দেখিয়েছে। আগামী নির্বাচনে চুড়ান্তভাবে লাল কার্ড দেখাবে-এটা নিশ্চিত। এটা যদি সরকার বুঝেও না বোঝার ভান করে, তাহলে তাদেরই বিপদ তারা ডেকে আনবে। সময় থাকতে সরকারকে হুসিয়ার হবার আহবান জানাচ্ছি। নচেৎ ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটিয়ে দেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা এবং জনগনের হাতে ক্ষমতা ফিরিয়ে দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হবে।
বিএনপি ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ১ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকালে দিনাজপুর জেলা বিএনপি কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এছাড়াও সেখানে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দিনাজপুর জেলা বিএনপির আহবায়ক এ.জেড,এম রেজওয়ানুল হকের সভাপতিত্বে ও জেলা যুবদলের সভাপতি মোন্নাফ মুকুলের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, রংপুর বিভাগীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও দিনাজপুর পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপি যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান মিয়া, যুগ্ম আহবায়ক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. মোফাজ্জল হোসেন দুলাল, যুগ্ম আহবায়ক এ্যাড. আনিসুর রহমান, খালেকুজ্জামান বাবু, মাহবুব আহমেদ, মোকাররম হোসেন, মোস্তফা কামাল মিলন, আখতারুজ্জামান জুয়েল, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোকসেদ আলী মঙ্গলিয়া, কোতয়ালী বিএনপির সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, পৌর বিএনপির সভাপতি সোলায়মান মোল্লা, জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম পাভেল, সাবেক ছাত্রনেতা মাহবুবুল হক হেলাল, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোকসেদুল ইসলাম টুটুল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক রাসেল আলী লিমন, যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল নিশাত, জাগপা নেতা ওয়ামিক আলভী তুহিন, ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীন, আবু তালেব, প্রমূখ।