(দিনাজপুর২৪.কম) বিরাট কোহলির ঝড়ো ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ৬ উইকেটে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করলো ইন্ডিয়া। ব্যাট হাতে কোহলির ৮২ রানের (৫১ বল) অপরাজিত ইনিংসে ১৬১ রানের লক্ষ্যটা পাঁচ বল বাকি থাকতেই টপকে যায় টিম ইন্ডিয়া।

আগামী ৩১ মার্চ দ্বিতীয় সেমিতে গ্রুপ ‘ওয়ান’ চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবে স্বাগতিকরা।

টি২০ বিশ্বকাপে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে রবিবার রাত ৮টায় মুখোমুখি হয় অস্ট্রেলিয়া ও স্বাগতিক ভারত। ম্যাচে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬০ রানের সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। ফলে সেমিফাইনালের টিকিট হাতে পেতে ভারতীয় টার্গেট দাঁড়ায় ১৬১ রান। প্রথম দিকে ভারতকে চাপে রাখতে পারলেও শেষ পর্যন্ত কোহলির ব্যাটিং তাণ্ডবে ৫ বল হাতে থাকতেই পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় অস্ট্রেলিয়াকে।

মোহালির মাঠে টস জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। ব্যাটিংয়ে নেমে দলকে উড়ন্ত সূচনা দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার উসমান খাজা ও অ্যারোন ফিঞ্চ। প্রথম ৪ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিল ৫৩ রান। তবে পঞ্চম ওভারে সাজঘরে ফিরতে হয়েছে খাজাকে। কিন্তু তাতে করে পাওয়ার প্লে (প্রথম ৬ ওভার) কাজ লাগাতে মোটেও বেগ পেতে হয়নি অস্ট্রেলিয়ানদের। ৬ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ৫৯ রান তুলেছিল তারা। এরপর অবশ্য ওয়ার্নার ও স্মিথের উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে খানিকটা ফিরে এসেছিল ভারত। পরবর্তীতে ফিঞ্চের উইকেটটি তুলে নিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজ দখলে নেয় ভারতীয়রা। শেষ অব্দি ভারতীয় বোলারদের বিপক্ষে ব্যাটের লড়াইয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬০ রান তোলে অস্ট্রেলিয়ানরা।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন ফিঞ্চ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩১ রান করেছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নিয়েছেন হার্দিক পান্ডে।

এদিকে ব্যাট করতে নেমে প্রথমে বেশ চাপে পড়ে ভারত। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পাওয়ার প্লে’র ছয় ওভারে ৩৭ রানের মধ্যে দুই ওপেনারের উইকেট হারায় ভারত। শিখর ধাওয়ান (১৩) ও শেন ওয়াটসনের বলে ক্লিন বোল্ড হন রোহিত শর্মা (১২)। ব্যক্তিগত ১০ রানে ওয়াটসনের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন সুরেশ রায়না।

ইনিংসের ১৪তম ওভারে কোহলি-যুবরাজের ৪৫ রানের চতুর্থ উইকেট জুটি ভাঙে। জেমস ফকনারের বলে ওয়াটসনের দুর্দান্ত ক্যাচে মাঠ ছাড়েন যুবরাজ সিং (২১)। তবে অপর প্রান্ত আগলে রাখেন কোহলি।

শেষ তিন ওভারে জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৮ বলে ৩৯। জেমস ফকনারের করা ১৮তম ওভারের প্রথম পাঁচ বলে ১৭ রান তুলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেন কোহলি। তাঁর ৫১ বলে ৮২ রানের ঝড়ো ইনিংসে ছিল ৯টি চার ও ২টি ছক্কার ‍মার। উইনিং শট খেলে ১০ বলে ১৮ রানে অপরাজিত থাকেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

সুপার টেন পর্বে দুই দলেরই এটি ছিল শেষ ম্যাচ। এর আগে নিজ নিজ ৩ ম্যাচের ‍দুটিতে জয় পায় এই দুই দল। ফলে সেমিফাইনালের টিকিট পেতে রবিবার রাতের এই ম্যাচটি ছিল দুই দলের জন্যই বাঁচা-মরার লড়াই। -ডেস্ক