(দিনাজপুর২৪.কম) অপরাধ না করেও ইতিহাসের প্রথম অভিশংসিত প্রেসিডেন্ট বলে নিজেকে দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গতকাল বুধবার সংখ্যাগরিষ্ঠের ভোটে তৃতীয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হওয়ার পর তিনি এ কথা বলেন।

ট্রাম্প বলেন, ‘ইতিহাসের আমিই প্রথম ব্যক্তি যে কোনো অপরাধ না করেই অভিশংসিত হলো। রিচার্ড নিক্সনের সময়টাকে আমি অন্ধকার যুগ মনে করি। তবে আমি দারুণ সময় কাটাচ্ছি।’

একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, সংখ্যাগরিষ্ঠের ভোটে ট্রাম্পের অভিশংসন প্রস্তাব পাস হলেও চূড়ান্ত অভিশংসনের জন্য দেশটির উচ্চকক্ষ সিনেটে প্রস্তাবটি উঠবে। সেখানে দুই তৃতীয়াংশ ভোটে অভিশংসিত হলে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়তে হবে ট্রাম্পকে।

মিশিগানে চলা এক সভায় ট্রাম্প অভিযোগ করেন, ডেমোক্রেটরা অভিশংসন প্রক্রিয়াকে ‘সস্তা’ বানিয়ে ফেলেছে। তিনি বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট খুবই পবিত্র পদ।’

সম্প্রতি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ট্রাম্পের ফাঁস হওয়া ফোনালাপে দেখা যায়, সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও তার ছেলে হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে রীতিমতো চাপ দিচ্ছেন ট্রাম্প।

ওই ফোনালাপের ভিত্তিতে গোয়েন্দা সংস্থার একজন সদস্য আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করার পর ট্রাম্পের অভিশংসনের দাবি সামনে আসে। তাকে ক্ষমতা থেকে সরাতে তদন্ত শুরু করে ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদ। শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) পরিষদের হাউজ জুডিশিয়ারি কমিটিতে অভিযোগের ওপর ভোটগ্রহণ করা হলে ২৩-১৭ ভোটে অভিশংসন প্রস্তাব পাস হয়। -ডেস্ক