(দিনাজপুর২৪.কম) জাতীয় চলচ্চিত্র দিবসের অনুষ্ঠান। অথচ আজ সকালে এফডিসির ঝরণা স্পটের পাশে নির্মাতা ও প্রযোজকদের আনাগোনা থাকলেও প্রথম সারির তেমন কোনো শিল্পীকেই দেখা গেলো না। তাদেরকে ইঙ্গিত করে সমালোচনার সুরে নায়করাজ রাজ্জাক বললেন, কোথায় আজ তথাকথিত সেই সুপারস্টাররা? পাশাপাশি নিজের সংগ্রামী চলচ্চিত্র জীবনের উদাহরণ টেনে বলেন, এখনও আমাদের চলচ্চিত্র শিল্পে সুদিন ফেরেনি। তিনি আরো বলেন, পূর্ব পাকিস্তান আমলে হিন্দি উর্দু ছবির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে আমাদের চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে হয়েছে। কিন্তু আজকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র কোথায় গেছে? না খেয়ে কষ্ট করে আমরা যে চলচ্চিত্র সৃষ্টি করেছিলাম তা আজকে কোথায়? সরকার চেষ্টা করলে হবে না। চেষ্টা করতে হবে আমাদের। আমরা কেউ বুকে হাত দিয়ে বলতে পারছি না যে আমরা চলচ্চিত্র বানাচ্ছি। চলচ্চিত্রের নামে যা হচ্ছে  সেগুলোকে খেলাই বলা চলে। নায়ক বানানোর খেলা, নায়িকা বানানোর খেলা, তারকা খ্যাতির খেলা। চলচ্চিত্র গোল্লায় গেল কি না সেটা ভাবার সময় নেই কারো। কিছুদিন আগেও মনে হতো চলচ্চিত্রের সুদিন বুঝি এসেছে। কিন্তু আজ মনে হচ্ছে না, আরো অনেক সময় লাগবে। ঠিক যতদিন চলচ্চিত্র বান্ধব, এফডিসি বান্ধব তারকা না জন্মাবে ততদিন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির উন্নতি হবে না। উল্লেখ্য, আজ সকালে এফডিসিতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার (বিএফডিসি) তত্ত্বাবধানে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে চলচ্চিত্র দিবস উদ্বোধন করবেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। এখানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। এ ছাড়া ছিলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, নায়করাজ রাজ্জাক, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব মুশফিকুর রহমান গুলজার, তথ্যসচিব মরতুজা আহমদ। -ডেস্ক