(দিনাজপুর২৪.কম) বিরাট কোহলির একটি বদনাম রটে গেছে, তিনি শুভকামনা জানালেই হলো! ওই দল আর সাফল্য পায় না। সর্বশেষ ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছিলেন কোহলি, ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাত্তাই পায়নি ভারত।

ভারতীয় অধিনায়ক তাই আর যেন কোনো টুর্নামেন্টের আগে কাউকে শুভেচ্ছা বার্তা না দেন, এই মর্মে তার বিরুদ্ধে সই সংগ্রহ করা হচ্ছে। ‘চেঞ্জ ডট ওআরজি’ নামে একটি ওয়েবসাইটে চলছে এমন সই সংগ্রহ। যেখানে কোহলিকে অশুভ (পনৌতি) বলা হয়েছে।

যে কোহালির ব্যাটিং দেখার জন্য অপেক্ষা করে থাকেন ক্রিকেটপ্রেমীরা, তাঁর বিরুদ্ধে কেন সই সংগ্রহ করা হচ্ছে? ভারত অধিনায়ক শুভেচ্ছা বার্তা জানালেই নাকি দল হারে। যেমনটা হয়েছে এ বারের মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালে। আর এই কারণেই কোহালির বিরুদ্ধে সই সংগ্রহ করা শুরু হয়ে গিয়েছে। শুধু তাই নয়, কোহালিকে সরিয়ে রোহিত শর্মাকে ক্যাপ্টেন করার দাবিও উঠতে শুরু করেছে।

তিনি শুভেচ্ছা জানালেই ভারতীয় দল আর আইসিসি টুর্নামেন্ট জিততে পারে না। যদিও কোহালি ছাড়াও বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়-সহ প্রায় সবাই হরমনপ্রীত কৌরদের শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছিলেন। কিন্তু কারওরই শুভেচ্ছা বার্তা কাজে আসেনি। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ৮৫ রানে হারে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দল।

শুধু শুভেচ্ছা বার্তা দেওয়া থেকে আটকানোই নয়, কোহালিকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন পদ থেকেও সরাতে সই সংগ্রহ শুরু করেছে চেঞ্জ ডট ওআরজি। সেখানে দাবি করা হয়েছে কোহালি থাকলে ভারত কোনও আইসিসি ট্রফি জিততে পারবে না।

২০১৩ সালে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির হাতে শেষ বার আইসিসি ট্রফি উঠেছিল। তার পর থেকে ভারত আর কোনও আইসিসি টুর্নামেন্ট জেতেনি। -ডেস্ক