(দিনাজপুর২৪.কম) নৈশভোজের নিমন্ত্রণ ছিল। নিছক ফেয়ারওয়েল ডিনার। অতিথি ছিলেন বাংলাদেশস্থ মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বর্নিকাট। বাংলাদেশে দায়িত্বপালন শেষে সহসাই ফিরে যাচ্ছেন তিনি। তার সম্মানেই এই আয়োজন। ঘরোয়া এই আয়োজনে যোগ দিয়েছিলেন সপরিবারে ড. কামাল হোসেন ও তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা হাফিজউদ্দীন আহমদসহ আরও অনেকে। আয়োজনটি ছিল সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদারের বাসায়।
রাত ১১টায় নৈশভোজ শেষে ফিরে যাওয়ার সময় একদল দুর্বৃত্ত অতর্কিতে ঢিল-পাটকেল ছুড়ে বার্নিকাটের গাড়ি লক্ষ্য করে। এ সময় তার গাড়িচালক আক্রান্ত হন। দুর্বৃত্তরা এরপর বদিউল আলম মজুমদার পরিবারের দিকে লক্ষ্য করেও ঢিল ছুড়ে।
অতিথিদের বিদায় দিতে বাড়ির গেটে দাঁড়ানো বদিউল মজুমদার পরিবার এ সময় নিরাপত্তার জন্য দ্রুত বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করেন। দুর্বত্তরা বার্নিকাটের গাড়ি চলে গেলে মজুমদারের বাড়িতেও একই কায়দায় ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে। ১৫/ বিশজনের দুর্বত্তদল এ সময় ড. মজুমদারের বাসায় হামলা চালায়। হামলায় মজুমদার পুত্র মাহবুব মজুমদার আহত হন। দুর্বৃত্তরা তার বাসার জানালার কাচ ভেঙে ফেলে। দরোজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করে।
ড. বদিউল আলম মজুমদার মানবজমিনকে জানান, অকষ্মাৎ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ১৫/২০ জনের একটি দল রাত ১১টায় তার বাসা থেকে বের হওয়ার পর বার্নিকাটের গাড়িতে কয়েকজন দুর্বৃত্ত ইটপাটকেল ছুড়ে। তারা বার্নিকাটের গাড়ির পিছু পিছু ধাওয়া করে। হামলায় বার্নিকাটের গাড়ি চালক আহত হয়েছেন। পরে এরাই আমার বাসায় হামলা চালায়।
বদিউল আলম মজুমদার আরও বলেন, রাত এগারোটার রাতের খাবার খেয়ে বাসা  থেকে বের হয়ে যখন উনি গাড়িতে উঠছিলেন তখন এই হামলা চালায়।  হামলাকারীরা রাষ্ট্রদূতের গাড়ির পেছনেও ধাওয়া করে, ঢিল ছুড়ে। মার্কিন রাষ্ট্রদূতের গাড়ি চলে যাওয়ার পর দুবৃত্তরা আমার বাসায় হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা বাড়ির দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে। ভেতরে প্রবেশ করতে না পেরে তারা ইট-পাটকেল ছুড়ে জানালার কাচ ভাঙে।
হামলার পরপর জরুরি হেল্পলাইন নম্বর ৯৯৯ নম্বরে যোগাযোগ করে পুলিশের সহায়তা চান মি. মজুমদার।
মোহাম্মদপুর থানার দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা মো: রাজিব মিয়া সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘ইকবাল রোডের একটি বাসায় দুর্বৃত্তরা ইট-পাটকেল ছুড়েছে, ৯৯৯ থেকে এমন খবর পাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট এলাকার টহল দলকে সেখানে পাঠানো হয়। ঘটনার সত্যতা যাচাই করার পর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত  থানায় এখনও কোনো মামলা হয়নি জানিয়েছেন থানার ডিউটি অফিসার। -ডেস্ক