(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম)ইরানের বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর কুদস ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলেইমানিকে গত ৩ জানুয়ারি ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করা হয়। ইরাকে জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করতে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থাকে অবস্থান সংক্রান্ত তথ্য দিয়ে সাহায্য করেছিল এক ইরানি গুপ্তচর। মাহমুদ মোসাবি-মাজদ নামের এই গুপ্তচরের মৃত্যুদণ্ড শিগগিরই কার্যকর করার ঘোষণা দিয়েছে ইরান।

আজ মঙ্গলবার দেশটির বিচার বিভাগীয় মুখপাত্র গোলাম হোসেন ইসমাইলি এক সংবাদ বিবৃতিতে এমনটা জানিয়েছেন বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে তাসনিম নিউজ এজেন্সি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ইসমাইলি জানিয়েছেন, মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ ও ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের গুপ্তচর মাহমুদ মোসাবি-মাজদকে গ্রেপ্তার করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। এই গুপ্তচর অর্থের বিনিময়ে ইরানের নিরাপত্তা সংক্রান্ত তথ্য শত্রুদের কাছে সরবরাহ করত। তার কাজ ছিল ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী আইআরজিসিসহ সশস্ত্র বাহিনীর নানা তথ্য সংগ্রহ করে সিআইএ ও মোসাদের কাছে সরবরাহ করা।

জেনারেল কাসেম সোলাইমানির অবস্থানস্থল ও গতিবিধি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে তা সিআইএ ও মোসাদের হাতে তুলে দিয়েছিল এই গুপ্তচর। আইআরজিসি বিপ্লবী আদালতের ফাঁসির রায় বহাল রেখেছে সুপ্রিম কোর্ট। এর ফলে খুব শিগগিরই ওই গুপ্তচরের ফাঁসির আদেশ কার্যকর করা হবে।

এর আগে গত বছরের জুলাই মাসে সিআইএ’র হয়ে কাজ করা ১৭ গুপ্তচরকে গ্রেপ্তারের দাবি করেছিল ইরান। -ডেস্ক রিপোর্ট