(দিনাজপুর ২৪.কম)স্থানীয় আমদানি-রপ্তানিকারক সমিতির সদস্যদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে দুই মাস ধরে বন্ধ রয়েছে জামালপুরের কামালপুর স্থলবন্দরের কার্যক্রম ।ফলে বেকার হয়ে পড়েছে প্রায় পাঁচ হাজার শ্রমিক। কাজ না থাকায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা।বন্দরের পাথর শ্রমিক ইয়াকুব বলেন, দুই মাস ধইরা কাজ কাম নাই। বউ বেডি নিয়া বিপদে আছি।আবু সাইদ নামে আরেক পাথর শ্রমিক বলেন, সমিতির গন্ডগোলে তিন মাস ধইরা হাতে কোনো কাম নাই। আমরা পোলাপানগরে খাবার দিবার পাই না।আমাগের কী দোষ? ওগের ক্ষমতা নিয়া কারাকারি, ওরা তো ধনী মানুষ, বন্দর বন্দ হইলে আমাগের খাবারও বন্দ হয়- কথাগুলো বলছিলেন কয়লা শ্রমিক তারিকুল ইসলাম।কামালপুর ল্যান্ড কাস্টমসের পরিদর্শক দেব দুলাল জানান, বিগত দুই মাসে এ বন্দর দিয়ে একটি টাকার পণ্যও আমদানি-রপ্তানি হয়নি।আমদানি-রপ্তানিকারক সমিতির সদস্যদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কথা স্বীকার করলেও কী কারণে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে তা বলেননি তিনি।পাথর ব্যবসায়ী গোলাম মামুদ সেতু জানান, বর্তমান কমিটির আর্থিক কেলাঙ্কারির কারণে বন্দরের কার্যক্রম পরিচালনা বিঘ্নিত হচ্ছে।এদিকে, বন্দরটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে ৩১ জুলাই জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) নিজাম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নার্গিস পারভীনসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতে ১১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়।এ কমিটির তত্ত্বাবধানে ওই দিন থেকে ৪৫ দিনের মধ্যে বন্দর পরিচালনার জন্য গণতান্ত্রিক উপায়ে আমদানি-রপ্তানিকারক সমিতির নির্বাচন দেওয়া হবে।অবিলম্বে পুনরায় বন্দর চালু করার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ শ্রমিকরা।(ডেস্ক)