(দিনাজপুর২৪.কম) কলকাতায় অবাধ নির্বাচনের জন্য বাহিনীকে প্রস্তুত হতে বললেন নতুন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। লালবাজার সূত্রের দাবি, শনিবার বাহিনীর অধস্তন অফিসারদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন কমিশনার (সিপি)। সেখানে তিনি বলেছেন, কলকাতায় অবাধ নির্বাচন করাতে হবে। তার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। কলকাতার সব থানার ওসি-দের নিজেদের এলাকা সম্পর্কে সড়গড় হতে বলেছেন তিনি।নির্বাচনের আগে কলকাতা পুলিশের প্রধানের দায়িত্ব নিয়েই অনুজের এই নির্দেশ ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলে মনে করছেন অনেকে। কেউ কেউ বলছেন, অনুজের বিরুদ্ধে ধর্মতলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ধর্নামঞ্চে যাওয়ার অভিযোগ তুলেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। এই পরিস্থিতিতে অনুজের এই নির্দেশ কি রাজনৈতিক সংশ্রবের অভিযোগ থেকে নিজেকে দূরে সরানোর ইঙ্গিত? পুলিশের একাংশের অবশ্য বক্তব্য, আইন মেনে এক জন পুলিশ কমিশনারের যা বলার, সেটাই বলেছেন অনুজ।এ প্রসঙ্গে অনেকেই বলছেন, ২০১৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনের সময় নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে সৌমেন মিত্র পুলিশ কমিশনার পদে বসেছিলেন এবং অবাধ ভোট করিয়ে সুনাম কুড়িয়েছিলেন। এ বার ভোটের আগে নয়া সিপি-ও কি সেই পথেই হাঁটছেন?পুলিশের একাংশ বলছে, সম্প্রতি সারদা মামলায় রাজীব কুমার ও সিবিআইয়ের দ্বন্দ্বে কলকাতা পুলিশেরও সুনাম নষ্ট হয়েছে। নয়া সিপি-র নির্দেশে সেই সুনাম ফেরানোর ইঙ্গিতও রয়েছে।নির্বাচনী বিধি মেনে সম্প্রতি কলকাতার প্রচুর থানায় ওসি ও অতিরিক্ত ওসি পদে রদবদল হয়েছে। ফলে নতুন থানার দায়িত্ব পাওয়া ওসি-দের নিজেদের এলাকা সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান থাকা জরুরি। তাই নতুন ওসি-দের উদ্দেশেই এ দিন সিপি বার্তা দিয়েছেন বলে মনে করছে লালবাজারের একাংশ।পুলিশের খবর, নির্বাচনের আগে শহরে দুর্বৃত্ত-দমনের কথাও বলেছেন সিপি। শুক্রবার রাত থেকেই গোয়েন্দা বিভাগের গুন্ডাদমন শাখাকে অভিযানে নামানো হয়েছে। শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অন্তত ১৩ জন দুষ্কৃতীকে পাকড়াও করা হয়েছে। এর পাশাপাশি গুজব ছড়ানো বন্ধ, মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতেও বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার।সুত্র আনন্দবাজার পত্রিকা