-ফাইল ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) কারো করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে তা গোপন না করে ডাক্তারের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে করোনা ভাইরাস নিয়ে অহেতুক আতঙ্কিত না হওয়ার কথাও বলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) গণভবন থেকে মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ‘পরিচ্ছন্ন গ্রাম-পরিচ্ছন্ন শহর’ কর্মসূচির আওতায় দেশব্যাপী পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যদি কেউ কখনো মনে করেন যে কেউ এ ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বা তার কোনোরকম নমুনা দেখা দিচ্ছে সঙ্গে সঙ্গে আপনাদের ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

তিনি বলেন, কোনোরকম উপসর্গ দেখা গেলে সেটা না লুকিয়ে রেখে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার দেখানো এবং পরামর্শ নেবেন, চিকিৎসা নেবেন।

রাজধানীতে আলাদা হাসপাতালসহ দেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলায় হাসপাতালগুলো প্রস্তুত রাখার কথা উল্লেখ করেন তিনি।

বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি ভালো থাকার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস এখন সারা বিশ্বব্যাপী। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে এটা মহামারি আকারে দেখা দিয়েছে। বাংলাদেশ এখনো ভালো আছে, ঘাবড়ানোর কিছু নেই। কিন্তু এটা থেকে ভালো থাকার জন্য আমাদের আরও সচেতন হতে হবে।

তিনি বলেন, সবাইকে বলবো, সচেতন থাকা দরকার। আমরা সব সময় হেড বুলেটিন দিয়ে যাচ্ছি। রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) মাধ্যমে সব সময় জানানো হচ্ছে। সেগুলো অনুসরণ করবেন। নিজেরা সচেতন থাকবো, অপরকে সচেতন করবো।

তিনি বলেন, এই সচেতনতামূলক যে সমস্ত নির্দেশনা আসছে সেটা সবাইকে মেনে চলতে হবে। তাহলেই আমরা কিন্তু আমাদের দেশটাকে ভাইরাসের আক্রমণ থেকে রক্ষা করতে পারবো।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবাইকে অনুরোধ করবো, হাঁচি-কাশি এলে আপনারা হাতের তালুতে না নিয়ে কনুয়ের মাধ্যমে করেন। আর কারো সঙ্গে হাত মেলাবেন না, হাত মেলানো, কোলাকুলি করা, বা কাউকে জড়িয়ে ধরা এগুলো সব বন্ধ রাখতে হবে। বাইরে থেকে ঘরে ফিরে সবান দিয়ে হাত ধোবেন। কখন কার মধ্যে যে এই রোগ আছে, কার মাধ্যমে চলে আসে এটা কেউ বলতে পারে না।

যেখানে সেখানে থুথু, ময়লা-আবর্জনা না ফেলার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

বিদেশ থাকা আসা ব্যক্তিদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা বিদেশ থেকে আসবে… তারা নিজেরা অন্তত বাইরের কারো সঙ্গে মিশবেন না এবং কিছুদিন অপেক্ষা করে দেখবেন এই ধরনের রোগের কোনোরকম লক্ষণ দেখা যায় কিনা খেয়াল করবেন। যদি লক্ষণ থাকে সঙ্গে সঙ্গে সেটা চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া।

প্রায় ১১৪টির বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) বাংলাদেশে যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য সরকার সর্বাত্মকভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।

করোনা ভাইরাস নিয়ে অহেতুক আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সারাবিশ্বব্যাপী একটা আতঙ্ক শুরু হয়ে গেছে। করোনা ভাইরাসটা এমন ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে যে এখানে হয়তো মৃতের সংখ্যা তেমন না কিন্তু আতঙ্ক অনেক বেশি।

‘পরিচ্ছন্ন গ্রাম-পরিচ্ছন্ন শহর’ কর্মসূচির আওতায় দেশব্যাপী পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধন শেষে কয়েকটি জেলার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

গণভবনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম প্রমুখ। -ডেস্ক