(দিনাজপুর২৪.কম) করোনাভাইরাসের নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে কাতারের রাজধানী দোহা ভ্রমণের চেষ্টা করছিলেন মো. নাসির উদ্দিন নামে এক যাত্রী। তাকে দেখে সন্দেহ হয় বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের। যাচাই করা হয় তার স্বাস্থ্যসনদ। দেখা গেল সেটি নকল। যাচাই-বাছাইয়ের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট দেখেন কর্মকর্তারা, যোগযোগ করা হয় চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনের কার্যালয়েও। দুই জায়গা থেকেই খবর পাওয়া গেল নাসির করোনা আক্রান্ত।

ভুয়া সার্টিফিকেট দেওয়ায় বিদেশ গমনেচ্ছু নাসিরকে বিমানবন্দরের ভ্রাম্যমাণ আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পাশাপাশি তাকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির নির্দেশ দেন। নাসির বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি।

গতকাল সোমবার এ ঘটনা ঘটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। সেখানকার স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বিকেলে কাতারের দোহাগামী যাত্রীদের করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পরীক্ষার সময় নাসির উদ্দিনের রিপোর্ট দেখে সন্দেহ হয় কর্মকর্তাদের সন্দেহ হয়। তিনি নেগেটিভ সার্টিফিকেট দিলেও সেটি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সার্ভারে দেখে যাচাই করেন তারা। সেখানে নাসিরকে করোনা পজিটিভ দেখানো রয়েছে।

কর্মকর্তারা জানান, চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের মাধ্যমে দোহাগামী যাত্রী নাসির করোনা পরীক্ষা করিয়েছিলেন। সেখানেও যাচাই করেন তারা। সিভিল সার্জন কার্যালয়ও জানায় নাসির করোনা আক্রান্ত। পরে তাকে বিমানবন্দরের ভ্রাম্যমাণ আদালতে তোলা হলে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির নির্দেশ দেওয়া হয়।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ বলেন, ‘বিমানবন্দরে সকল যাত্রীর করোনা সার্টিফিকেট পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু একজন যাত্রী নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে আসেন, কিন্তু সার্ভারে তার পজিটিভ রিপোর্ট ছিল। পরবর্তীতে যাচাই করে দেখা যায়, যাত্রী নিজেই ভুয়া রিপোর্টটি তৈরি করে নিয়ে এসেছেন।’ -ডেস্কে