প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা - সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) আসন্ন শীত মৌসুমে করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় জেলা হাসপাতালগুলো প্রস্তুত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘গত শীতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হয়েছিল। এটি আসন্ন শীতে আবার উত্থান হতে পারে মাথায় রেখে, আমরা প্রতিটি জেলা হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপন এবং অক্সিজেন নিশ্চিতকরণসহ সব ধরণের চিকিৎসা সেবা প্রস্তুত করে রাখছি।’

বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কিশোরগঞ্জের ‘অল ওয়েদার রোড’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিস্তৃত জলরাশির মধ্যে দিয়ে বয়ে চলা ২৯.৭৩ কিলোমিটারের নয়নাভিরাম সড়কটি কিশোরগঞ্জের তিন উপজেলা ইটনা, মিঠামইন ও অস্টগ্রামকে সংযুক্ত করেছে।

শেখ হাসিনা বলেন, কোভিড-১৯ মহামারি সংঘটিত হওয়ার পরে সরকার তাৎক্ষণিকভাবে প্রায় ২ হাজার চিকিৎসক, ৩ হাজার নার্সসহ কয়েক হাজার স্বাস্থ্য প্রযুক্তিবিদ নিয়োগ দিয়েছে।

ইটনা-মিঠামইন-অস্টগ্রাম সড়কটি বিস্তৃত হাওয়ারের জলরাশির মধ্যে দিয়ে ধানু ও লাউলাই নদীর সমান্তরালে ইটনা উপজেলা থেকে মিঠামইন হয়ে অষ্টগ্রামে পৌঁছেছে। ভবিষ্যতে হাওরের অলওয়েদার সড়কটি সিলেট-ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহাসড়কের সাথে সংযোগ স্থাপন করা হবে। এছাড়া হাওরে ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। ২০১৬ সালে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তার নিজ জেলা কিশোরগঞ্জে যেয়ে নয়নাভিরাম সড়কটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

সড়কটির উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী মিঠামইন উপজেলা থেকে যুক্ত স্থানীয়দের সাথে মতবিনিময় করেন। স্থানীয় সংসদ সদস্য (এমপি) ও কিশোরগঞ্জ জেলার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা মিঠামইন প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় জনগণের সাথে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের পক্ষে এই সড়কটি আপনাদের জন্য একটি উপহার।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমেদ কায়কাউসের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ইউএনবি