(দিনাজপুর২৪.কম) বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে আসন্ন বাংলা নববর্ষের সব ধরনের অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম স্থগিত করেছে সরকার। স্থগিত করা হয়েছে পার্বত্য অঞ্চলের বৈসাবি উৎসবের অনুষ্ঠানও।

বুধবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ আবদুল ওয়াদুদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসজনিত রোগের (কোভিড-১৯) বিস্তার রোধকল্পে জনসমাগম পরিহার করার লক্ষ্যে আসন্ন পহেলা বৈশাখ ১৪১৭ বা এই উপলক্ষে সব ধরনের অনুষ্ঠান/কার্যক্রম স্থগিত করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো। তিন পার্বত্য জেলার বৈসাবিসহ অন্যান্য অনুষ্ঠানও স্থগিত করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এ নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি ডিজটাল উপায়ে নববর্ষের অনুষ্ঠান পালন করতে আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে রমনা বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণের প্রভাতি আয়োজন শুরু ১৯৬৭ সাল থেকে। এরপর ১৯৭১ সাল ছাড়া প্রতি বছররই অনুষ্ঠিত হয়েছে ছায়ানটের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।

পহেলা বৈশাখের ছায়ানটের আয়োজনটিকে ঘিরে সারা ঢাকা শহরের মানুষ একত্রিত হন রমনায়। ২০০১ সালে ভয়ংকর সিরিজ বোমা হামলার পরের বছরেও যে আয়োজন বন্ধ হয়নি। কিন্তু এবার করোনাভাইরাসের মোকাবেলা করতে স্থহিত করা হলো ছায়ানটের বর্ষবরণের আয়োজন। -ডেস্ক