(দিনাজপুর২৪.কম) সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে বেসিক ব্যাংকের দুর্নীতি নিয়ে কথা বলেছিলেন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস। বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুকে কেন আসামি করে মামলা করা হচ্ছে না, এ ব্যাপারে দুদক কী করছে- এমন প্রশ্ন তোলেন তাপস। এই ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে দুদক চেয়ারম্যানকে পদত্যাগ করতেও বলেন তিনি। ‌

বিষয়টি নিয়ে এবার কথা বললেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। রোববার ‘করাপশন এগেইনস্ট রিপোর্টার্স’ এর আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন দুদক চেয়ারম্যান।

তাপসকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, বেসিক ব্যাংক দুর্নীতি ইস্যুতে আব্দুল হাই বাচ্চুকে চার্জশিটভুক্ত করা হবে কিনা এই বিষয়ে বলার তিনি কে? দুর্নীতি দমন কমিশন একটি স্বাধীন কমিশন। কমিশন তার নিজ গতিতে চলে। কমিশনকে চাপে রাখার সুযোগ কারো নেই।

ফজলে নূর তাপসের উদ্ধৃতি দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইকবাল মাহমুদ বলেন, তদন্ত কি উনি করেছেন? তদন্ত করছে কমিশন। কমিশন যেখানে তদন্ত করছে তখন এই বিষয় নিয়ে তো কথা বলাই উচিত না।

পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির ইস্যুতে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, কেউ বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করে অবৈধ সম্পদের মালিক হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, কেউ যদি বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করে থাকে তা দেখা দুদকের এখতিয়ারভুক্ত নয়। এটা দেখবে শুল্ক গোয়েন্দা। তবে তাদের কাছ থেকে যদি কোনো তথ্য পাওয়া যায় যে কেউ বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করে অবৈধ সম্পদের মালিক হচ্ছেন তাহলে আমরা ব্যবস্থা নেব।

তিনি আরও বলেন, নিয়ন্ত্রণহীন পেঁয়াজের বাজারের প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর আমদানিকারকদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। আমরা শুধু সেটা পর্যবেক্ষণ করছি। -ডেস্ক