(দিনাজপুর২৪.কম) গত কয়েক মাস ধরে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কয়েকজন শিশুকে নির্যাতনের পর দেশবাসী ক্ষোভে ফেটে পড়েন। এরপর প্রশাসন এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ায় আপাতত সেটা বন্ধ হলেও এবার হবিগঞ্জে প্রকাশ্যে এক স্কুলগামী ছাত্রীকে পথের মাঝে আটকিয়ে বেদম প্রহার করেছে এক বখাটে। সম্প্রতি ওই স্কুলছাত্রীকে প্রকাশ্যে নির্যাতনের ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। ফেসবুকের ছবিতে সেই বর্বর দৃশ্য দেখে অনেকেই হতবাক হয়েছেন। বৃহস্পতিবার ফেসবুকে রানা আহমেদ নামে একজনের ওই নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করেছেন। যেখানে দেখা যায়, স্কুলড্রেস পড়া কয়েকজন ছাত্রী রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। সাদা স্কুলড্রেস পড়া কয়েকটি ছেলেও দাঁড়িয়ে আছে। রাস্তার অপরদিকে এ সময় দুটি ছেলে এসে দুই ছাত্রীর সামনে দাঁড়ায়। এরপর শার্ট-প্যান্ট পড়া একটি ছেলে একটি মেয়েকে উদ্দেশ্য করে কিছু বলতে থাকে। মেয়েটি ভয়ে একটু দূরে সরে যায়। এরপর ওই ছেলেটি মেয়েটিকে ঘিরে ধরে এবং দুই হাত দিয়ে সমানে চরথাপ্পর মারতে থাকে আর বলতে থাকে, তোর হাত দুটো কেটে ঝুলিয়ে রাখবো। এরপর ছেলেটি চলে যায়। তবে কেন ওই ছেলেটি ছাত্রীটিকে এভাবে মারলো তা মারার সময় বলেনি।

রানা পোস্ট করা ওই ভিডিওতে নিজেই মন্তব্য করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘আমি লজ্জানত হয়ে বাবা-মায়ের এবং হবিগঞ্জে সমাজের ভাই-বোন ও পুলিশ সুপারে কাছে বলব দয়া করে বিষয়টিতে একটু চোখ দিবেন।’

এতে বোঝা যায় ঘটনার দৃশ্যটি হবিগঞ্জ শহরের কোনো একটি স্কুলের পাশের রাস্তায়। তবে এটি কোন রাস্তা এবং ওই ছাত্রী কোন স্কুলের তা লেখা হয়নি। এছাড়া ওই ছাত্রীর সঙ্গে ছেলেটির সম্পর্ক কী তাও স্পষ্ট করা হয়নি পোস্ট করা লেখায়। -ডেস্ক