(দিনাজপুর২৪.কম) একেক খাবার খেতে হয় একেক নিয়ম মেনে। কিছু খাবার কাঁচাই খেয়ে ফেলা হয়। কিছু কিছু আবার খাওয়া হয় হালকা সেদ্ধ করে। আবার এমন অনেক খাবার রয়েছে যা বেশি সময় সেদ্ধ করলে বা পোড়ালে খাওয়ার উপযুক্ত হয়।আজ চলুন এমন কিছু খাবার সম্পর্কে জেনে নিই যা কাঁচা গ্রহণ করলেই বেশি স্বাস্থ্য উপকারিতা মিলবে-

মরিচ-খাবারে ঝাল স্বাদের জন্য মরিচ দেওয়া হয়। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব হেলথ এর তথ্যানুসারে, মরিচ যদি ৩৭৫ ডিগ্রি তাপমাত্রায় রান্না করা হয় তবে এর পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়।পেয়ারা-অনেকেই পেয়ারা দিয়ে জ্যাম বা জেলি বানিয়ে খায়। আবার এই ফলটি দিয়ে অনেক সুস্বাদু খাবারও রান্না করা হয়। তবে এর পুষ্টিগুণ পুরোপুরি পেতে চাইলে কাঁচা খাওয়াই উত্তম।ব্রকলি-দেখতে ফুলকপির মতো সবুজ রঙা সবজিটি ভিটামিন সি ও ক্যালসিয়ামের পরিপূর্ণ। এসব খাবার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। ব্রকলি খুব বেশি সেদ্ধ করা একদমই উচিত নয়। সেদ্ধ করলে এর সালফোরেফেন ৭০ শতাংশ কমে যায়।নারকেল-হাইড্রেট জাতীয় ফল নারকেল। এটি দেহের পানি ধরে রাখতে সাহায্য করে। পটাশিয়াম ও সোডিয়াম সমৃদ্ধ নারকেল রান্না করে খেলে এর উপকারিতা নষ্ট হয়ে যায়। অর্থাৎ নারকেল কাঁচা খাওয়া উচিত।বাদাম-আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাসের মতো উপকারী উপাদান রয়েছে বাদামে। এই খাবারটি কাঁচা খাওয়াই ভালো।আপনি কি খাবারগুলো কাঁচা খান নাকি রান্না করে? সঠিক পুষ্টি পেতে চাইলে এগুলো কাঁচা খাওয়ার অভ্যাস করুন। -ডেস্ক