(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে অনুষ্ঠিত টেস্ট ম্যাচে টাইগার দলে নিযুক্ত লোকাল সুপার ভাইজার তপন চাকি ফেঁসে যাচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) দুর্নীতি বিভাগের (আকসু) কাছে।

অভিযোগ উঠেছে টেস্ট ম্যাচ চলাকালে অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহার করা ও তা নিয়ে ড্রেসিং রুমে প্রবেশ করেছেন তিনি। জানা গেছে এই অভিযোগ করা হয়েছে খোদ ভারতীয় দলের ড্রেসিং রুম থেকেই।

তপনের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় অভিযোগ তাকে বারবার মুঠোফোন ব্যবহার করতে নিষেধ করা হলেও তিনি তাতে কর্ণপাত করেননি। এমনকি তাকে টেস্টের দ্বিতীয় দিন থেকেই বাংলাদেশের ড্রেসিং রুমে যেতে নিষেধ করা হয়।

সেখানে তাকে আর ঢুকতেও দেওয়া হয়নি। অন্য দিকে সিএবি সূত্রে জানা গেছে তাকে (তপন) জিজ্ঞেসাবাদ শেষে থানায় মামলা করতে যাচ্ছিলেন আকসুর প্রতিনিধিরা। তবে বিসিসিআই প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলি ও সিএবির বর্তমান সেক্রেটারি অভিষেক ডালমিয়া বুঝান যে তপন ভুল করে বিষয়টি করেছেন।

সেই মুহুর্তে মামলা না হলেও আকসুকে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে হবে। কারণ এই ঘটনা ধামাচাপা দিতে কোনোভাবেই পারবে না আকসু। তাই তপনকে আরও তথ্যের জন্য ডাকা হবে মুম্বাইয়ে।‘টাইমস নাউ’ পত্রিকার এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইডেনে দিন-রাতের টেস্ট চলাকালীন তপন চাকি নামে এক লোকাল ম্যানেজার প্রোটোকল ভেঙে সফরকারী দলের ড্রেসিংরুমে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেছেন। বারবার তাকে সতর্ক করা হলেও নিয়ম ভাঙার কাজটি তিনি চালিয়ে যান।

তাতে প্রোটোকল ভাঙায় এখন বিসিসিআই-আকসুর স্ক্যানারের আওতায় তপন। বসতে হবে দুই সংস্থার শুনানির সামনেও।অ্যান্টি করাপশন ইউনিটের (আকসু) পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে, অচিরেই শুনানির জন্য তপন চাকিকে তলব করা হবে। তার বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হলে তাকে কঠিন শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে।

বিষয়টি নিয়ে তপন চাকিকে প্রশ্ন করা হয়েছিল- আপনার বিরুদ্ধে আকসুর একটি অভিযোগ আছে, আপনি ড়্রেসিং রুমে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেছেন। এ বিষয়ে আপনি কি বলবেন?তবে আইসিসির কোড অব কন্ডাক্ট ভাঙ্গার বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে তপন চাকি বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিসিসিআইর এক কর্মকর্তা টাইমস নাউ পত্রিকাকে বলেছেন, চাকিকে এখন শুনানির জন্য ডাকা হবে। প্রোটোকল অনুযায়ী ডিউটিতে থাকা আকসু অফিসার বিষয়টি জানাবে এবং চাকিকে শুনানির জন্য ডাকা হবে। যদি তার বিরুদ্ধে প্রমাণ পাওয়া যায়, তখন বাকি কাজের ব্যাপারে আইন অনুসরণ করা হবে।

জুয়াড়িদের ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করার কারণে সাকিব আল হাসানকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি। যা নিয়ে ভারত সফরের আগে থেকেই টালমাটাল বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গন। তার মধ্যেই আবার তপন চাকিকে নিয়ে নতুন খবর এল। -ডেস্ক