(দিনাজপুর২৪.কম) এবার পেটে ভরে স্বর্ণ পাচারের ঘটনা ধরা পড়েছে রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। দুবাই থেকে আসা এক যাত্রীর পেটের ভেতর পাওয়া গেছে ৬টি সোনার বার। দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টার পর আজ শুক্রবার সকালে কাজী রফিকুল ইসলাম (৩৮) নামের ওই যাত্রীর শরীরের ভেতর থেকে এসব সোনার বার উদ্ধার করে ঢাকা কাস্টম হাউজের কর্মকর্তারা। তিনি জানান, পাচারের জন্য নিজের কৌশলে তার পায়ুপথের ভেতর দিয়ে পাকস্থলীতে সোনার বারগুলো ঢুকিয়ে এনেছিলেন। রফিকুল নিয়মিত বিদেশ যেতেন। তার গ্রামের বাড়ি বরিশালে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। শুল্ক কর্মকর্তাদের দাবি, রফিকুলের কাছ থেকে ৬টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। এসব বারের মোট ওজন ৭০০ গ্রাম। মূল্য প্রায় ৪০ লাখ টাকা।
ঢাকা কাস্টম হাউজের যুগ্ম কমিশনার এস এম সোহেল রহমানের ভাষ্যমতে, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ফ্লাই দুবাইয়ের উড়োজাহাজে করে দুবাই থেকে ঢাকা আসেন রফিকুল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রফিকুলের ব্যাগ তল্লাশি করা হয়। কিন্তু সোনার বার পাওয়া যায়নি। পরে রফিকুলের কথাবার্তা ও আচরণে সন্দেহ বাড়ে শুল্ক কর্মকর্তাদের।
আজ সকালে উত্তরার একটি ক্লিনিকে নিয়ে রফিকুলের পেটে এক্স-রে করে সোনার বারের সন্ধান পাওয়া যায়। এর পর রফিকুল নিজেই সোনার বারগুলো বের করে দেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শুল্ক কর্মকর্তাদের রফিকুল জানান, পাচারের জন্য অত্য কৌশলে নিজের পায়ুপথের ভেতর দিয়ে পাকস্থলীতে সোনার বারগুলো ঢুকিয়ে রাখেন। -(ডেস্ক)