(দিনাজপুর২৪.কম) ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডে সোমবার একজন সাবেক ইউপি সদস্য ও একজন ক্লিনিক মালিককে গুলি ও জবাই করে হত্যার পর এবার সদর উপজেলার নলডাঙ্গা সিদ্ধেশ্বরী মন্দিরের পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাংগুলি নন্দ (৭০) কে জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।নিহত পুরোহিত আনন্দ গোপাল গ্ংগুলি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার করাতিপাড়া গ্রামের সত্য গোপালের ছেলে। মঙ্গলবার সকালে সাড়ে ৯টার দিকে সোনাইখালী গ্রামের মহিষের ভাগাড় নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাংগুলি নন্দ মন্দিরে যাচ্ছিলেন। তিনি নিজ বাড়ি থেকে দুই কিলোমিটার মহিষের ভাগাড় বিলের মধ্যে পৌঁছালে তিনজন হেলমেট পরিহিত মোটরসাইকেল আরোহী তার গতি রোধ করে মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। আঘাতের পর তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। লাশের সুরোতহাল প্রস্তুতকারি এসআই মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, পরোহিত আনন্দ গোপাল গাংগুলি নন্দের মাথা, ঘাড়, গলাসহ বিভিন্ন স্থানে ধারোল অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এদিকে পুরোহিত হত্যার খবর পেয়ে বেলা ১১টার দিকে ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার, পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুস্তাফিজুর রহমান ও ঝিনাইদহ র‌্যাবসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের প্রতিনিধিঘটনাস্থলে যান। ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, পুরোহিতকে কে বা করা হত্যা করেছে তাৎক্ষণিক ভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে এ ঘটনার পর গোটা জেলার বিভিন্ন স্থানে তল্লাশী চৌকি বসিয়ে হত্যাকারীদের গ্রেফতারের অভিযান শুরু হয়েছে। নিহতের স্বজনরা ঘটনাস্থলে আসার পর ময়না তদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে আনা হবে বলেও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান। -ডেস্ক