(দিনাজপুর২৪.কম) বিএনপির দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সরকারের ৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার যে প্রণোদনা দিয়েছে, এই পদক্ষেপে কিছুটা আশ্বস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রোববার (০৫ এপ্রিল) এক অনলাইন বিফিংয়ে বিএনপি মহাসচিব এ কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে প্রণোদনা দিয়েছে, তাতে আমরা আশ্বস্ত হয়েছি। কারণ তিনি জনগণের মতামতকে কিছুটা গুরুত্ব দিতে শুরু করেছেন। দুর্ভাগ্যজনক বিষয় হলো, আমরা যে বিষয়টি উল্লেখ করেছি। প্রধানমন্ত্রী কিন্তু সে বিষয় সম্পর্কে কোনো কথা বলেনি। বিশেষ করে দিন আনে দিন খায়, তাদের সংখ্যা দেশে অনেক বেশি। তাদের নিয়ে তেমন কিছু তিনি বলেননি। বাংলাদেশ পোশাক শিল্পে ১৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দেয়ার বিষয়ে বলেছি। কিন্তু এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সুনির্দিষ্ট কোনো বক্তব্য পাইনি।

তিনি আরও বলেন, পরীক্ষার বিষয়ে স্বাস্থ্যখাত যে কথা বলেছে, কিন্তু এখন তো দেখা যাচ্ছে পরীক্ষা নেই, পরীক্ষা নেই অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষ যেখানে যায়, সেখানে মানুষকে বলা হয় পরীক্ষা হবে না। ভেন্টিলেটর আরও বেশি করে আনা প্রয়োজন ছিল। কিন্তু সরকার প্রধান সে বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট কথা বলেনি।

গার্মেন্টস কর্মীরা এলেন তাদের ডাকে, আবার ছুটিও দেয়া হলো, বিষয়টা এক প্রকার জোকস ছাড়া কিছুই না বলে মন্তব্য করেন বিএনপির এই নেতা।

বিশেষ করে দিন আনে দিন খায়, তাদের সংখ্যা দেশে অনেক বেশি। তাদের নিয়ে তেমন কিছু তিনি বলেননি। বাংলাদেশ পোশাকশিল্পে ১৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দেয়ার বিষয়ে বলেছি। কিন্তু এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সুনির্দিষ্ট কোনো বক্তব্য পাইনি।

‘এই সংকট মোকাবিলায় যে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। তা রাজস্ব খাত থেকে আসবে সে বিষয়ে কোনো বলা হয়নি।’

তিনি বলেন, পরীক্ষার বিষয়ে স্বাস্থ্যখাত যে কথা বলেছে, কিন্তু এখন তো দেখা যাচ্ছে পরীক্ষা নেই, পরীক্ষা নেই অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষ যেখানে যায়, সেখানে মানুষকে বলা হয় পরীক্ষা হবে না। ভেন্টিলেটর আরও বেশি করে আনা প্রয়োজন ছিল, কিন্তু সরকার প্রধান সে বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট কথা বলেনি।

‘স্বাস্থ্য ডিজি ও আইইডিসিআর বলছে, কোনো সেক্টরে সমন্বয় নেই। আর স্বাস্থ্যমন্ত্রীতো মনেই করছে না দেশে কোনো কিছু হচ্ছে। এখন ব্যাপারটা এমন’ -ডেস্ক