(দিনাজপুর২৪.কম) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, এক সরকারি কর্মকর্তার সঙ্গে একই অফিসের এক নারী অফিস সহায়ক (পিয়ন) অন্তরঙ্গ সময় কাটাচ্ছেন। ঘটনাটি নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলা কৃষি অফিসের।

ওই অফিসের উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন ও নারী পিয়ননের অন্তরঙ্গ মুহর্তের ফুটেজ ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পরই ছুটিতে চলে যান জয়নাল আবেদীন।

তবে মোবাইল ফোনে ঘটনা স্বীকার করে জয়নাল আবেদীন বলেন, আমি ভুল করেছি। শয়তানের প্ররোচনায় আমি ভুল করেছি। আমি এ ঘটনার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।

ওই নারী পিয়ন বলেন, জয়নাল সাহেব আমার ঊর্ধ্বতন অফিসার। তিনি আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজ করেছেন। চাকরির ভয়ে আমি চুপ ছিলাম।

বন্দর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তাহমিনা বেগম বলেন, ‘আমি সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছি। তার অনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিষয়ে জেলা কৃষি কর্মকর্তাকে অবহিত করেছি। তিনি ব্যবস্থা নেবেন।’

অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে নারায়ণগঞ্জ জেলা কৃষি কর্মকর্তা কাজী হাবিবুর রহমান বলেন, জয়নালকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে।

বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বলেন, এ ধরনের অপরাধ মেনে নেওয়া যায় না। বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শুক্লা সরকারকে অবহিত করেছেন।

উপজেলার একাধিক কর্মকর্তা বলেন, জামালপুরের ডিসি যদি তার কৃতকর্মের জন্য শাস্তি পেতে পারেন, বন্দর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কেন পাবেন না। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান তারা। -ডেস্ক