(দিনাজপুর২৪.কম) সমিতির ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে ঝিনাইদহের শৈলকূপায় কনক রানী (৩৫) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি পৌর এলাকার কবিরপুর গ্রামের সুরঞ্জন কর্মকারের স্ত্রী। কনক রানীর ছেলে সুজন কর্মকার জানান, বেশ কিছুদিন ধরে গ্রামীণ ব্যাংক, পদক্ষেপ, আশা ও আদ-দ্বীনসহ বেশ কয়েকটি সমিতি থেকে প্রায় দেড় লাখেরও বেশি টাকা ঋণ নেয় তার মা। এর মধ্যে গ্রামীণ ব্যাংক থেকে ৫০ হাজার, আদ-দ্বীন ৫০ হাজার, পদক্ষেপ ৩০ হাজার ও আশা সমিতি থেকে ২০ হাজার টাকা। এই টাকা দিয়ে তার মা তাকে একটি সিটি গোল্ডের দোকান করে দেন। এরপর নিয়মিতই কিস্তি পরিশোধ করে আসছিলেন তিনি। এক পর্যায়ে সমিতির কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে বিলম্ব হওয়ায় আদায়কারী কর্মীদের চাপের মুখে পড়েন তিনি। কোনো উপায়ন্ত না পেয়ে অসহায় হয়ে অবশেষে শুক্রবার সকালে ঘরের দরজা বন্ধ করে গলাই ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন। শৈলকূপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমএ হাশেম খান জানান, এ ঘটনায় শৈলকূপা থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। – ডেস্ক