yaba-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) ঈদুল আজহাকে ঘিরে সংঘবদ্ধ পাচারকারী সিন্ডিকেট বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। পুলিশ, বিজিবি, কোস্টগার্ড ও গোয়েন্দা সংস্থার চোখ ফাঁকি দিয়ে শক্তিশালী ইয়াবা সিন্ডিকেট সাগর ও সড়ক পথে সমানতালে ইয়াবা পাচার করছে। গত এক দিনে পুলিশ, বিজিবি ও কোস্টগার্ডের সদস্যরা পৃথক অভিযান চালিয়ে প্রায় ২১ কোটি টাকার ইয়াবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে। এসময় উদ্ধার করা হয়েছে ইয়াবাবহনকারী বিলাসবহুল গাড়ি, মোটরসাইকেল ও ইঞ্জিনচালিত বোট।

কক্সবাজার টেকনাফ সড়কের মরিচ্যা বিজিবি সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে টেকনাফ থেকে আসা একটি বিলাসবহুল গাড়িতে বিজিবি সদস্যরা তল্লাসী চালিয়ে প্রায় কোটি টাকা মূল্যের ২৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করে।

বিজিবির নায়েব সুবেদার সাদেক আলী জানান, আটককৃতরা হচ্ছে ফরিদপুর জেলার কস্বা গ্রামের মো. মোসলেম উদ্দিন (৪০), মাদারীপুর বোরহানগঞ্জ চরমাইল গ্রামের মোতালেব হোসেন (৩১) ও শরীয়তপুর জেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের সোহেল সিকদার (২৮)। এ ব্যাপারে সুবেদার সাদেক আলী বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করে তাদের ব্যবহৃত গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে।

শনিবার ভোর ৫টার দিকে ইঞ্জিন চালিত ২৫ অশ্বশক্তিসম্পন্ন একটি মাছ ধরার নৌকা টেকনাফ সাগর পথে রওনা হয়ে আনোয়ারা সাত্তার মাঝির ঘাটে পৌঁছলে কোস্টগার্ডের সদস্যরা বোটটিতে তল্লাসী চালায়। চট্টগ্রাম কোস্টগার্ডের জোনাল কমান্ডার এম. নুরুজ্জামান শেখ জানান, বোটের ভিতরে প্যাকেট জাত করে অভিনব কায়দা লুকিয়ে রাখা ১৯ কোটি টাকা মূল্যের ৩ লক্ষ ৯ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে বোটটি জব্দ করা হয়েছে।

এ ঘটনার দেড় ঘণ্টার পর প্রায় ৪ কোটি টাকা মূল্যের ইয়াবা নিয়ে একটি পিকআপ ভ্যান টেকনাফ থেকে মেরিন ড্রাইভ সড়ক পথে রওয়না হয়। এসময় অপর একটি সিন্ডিকেট উক্ত ইয়াবার চালান ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য পিকআপ ভ্যানের পিছু মোটরসাইকেল নিয়ে ধাওয়া করে। ইয়াবা বহনকারী গাড়িটি ইনানী মিশন লাবেলা রিসোর্টের সন্নিকটে পৌঁছলে মোটরসাইকেল আরোহী কৌশলে গাড়িতে উঠে ড্রাইভারের সাথে ধস্তাধস্তি করলে গাড়িটি দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে ঘটনাস্থলে ৩ জনের মৃত্যু হয়। এসময় পাচারকারী সিন্ডিকেট অধিকাংশ ইয়াবা লুটপাট করে নিয়ে গেলেও পুলিশ সাড়ে ১৩শ’ পিস ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। যার মূল্য প্রায় অর্ধ কোটি টাকা।

নিহত ইয়াবা পাচারকারীরা হচ্ছে মনখালী গ্রামের জিয়াউল হক (২৫), কুমিল্লা কুমিরা গ্রামের মো. ফারুকের স্ত্রী মমতাজ বেগম (২৫) ও কুমিল্লা কমলগঞ্জ জোরকমল গ্রামের এরশাদ মিয়া (২৮)। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল খায়ের জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি মোটরসাইকেল ও পিকআপ ভ্যানটি জব্দ করা হয়েছে।

একইদিন শনিবার গাজীপুর জেলার টঙ্গী এলাকার মোক্তার বাড়ি রোডস্থ জনৈক রিয়াজুল ইসলামের বাড়িতে র‌্যাব পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে উখিয়া বালুখালী গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে জাফর আলম(৩৭) ও তার স্ত্রী লাকি আকতারকে (২৭) আটক করেছে। তাদের নিকট থেকে নগদ ৮৯ হাজার টাকাসহ এক কোটি টাকা মূল্যের ২২ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে বলে গাজীপুুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউল ইসলাম উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জকে অবহিত করেছেন। কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার জানান, ঈদকে সামনে রেখে ইয়াবা পাচার প্রতিরোধে পুলিশ-বিজিবি’র সমন্বয়ে যৌথ টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। তারা সড়ক পথে শক্ত ও সর্তক নজরদারির মাধ্যমে ইয়াবা পাচার প্রতিরোধে সক্রিয় থাকবে।