(দিনাজপুর২৪.কম) এপেক্স বাংলাদেশ জাতীয় সভাপতি এপেঃ এ্যাড. সৈয়দ নুরুন রহমান বলেছেন, একজন এপেক্সিয়ানকে হতে হবে আদর্শ নাগরিক এবং আর্তমানবতার সেবায় আত্মনিমগ্ন। এপেক্স ক্লাবের সেবাদান কার্যক্রম মানবদেহের হৃদপিন্ড। একজন এপেক্সিয়ানের জীবন তখনই পূর্ণতা পায়, যখন তিনি আর্তমানবতার সেবায় নিজেকে নিমগ্ন করেন।  আজ শনিবার এপেক্স ক্লাব অব দিনাজপুর আয়োজিত এপেক্স বাংলাদেশ, জেলা-৭ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ-২০১৫ উপলক্ষে রামকৃষ্ণ আশ্রম পরিচালিত হরিজন পল্লীতে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ প্রদান করতে গিয়ে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথাগুলো বলেন। রোটারী ক্লাব অব দিনাজপুর এর প্রেসিডেন্ট এপেঃ নুরুল মতিন সৈকত এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ক্লাব সেক্রেটারী এপেঃ এ্যাড. মোঃ নেজামুল হক চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এপেক্স বাংলাদেশ জাতীয় সেবা পরিচালক আসাদুজ্জামান কাঞ্চন, জেলা গভর্ণর-৭ এনওয়াইসিডি এপেঃ মতিন সিকদার, জেলা গভর্ণর-৭ এপেঃ নাসিম আহমেদ, জেলা গভর্ণর-১ এপেঃ রুহুল মঈন চৌধুরী ও রামকৃষ্ণ আশ্রমের স্বামী নামামৃত মহারাজ। এর পরে দিনাজপুর প্রেসক্লাব হতে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। উক্ত র‌্যালীর নেতৃত্ব দেন প্রধান অতিথি এপেক্স বাংলাদেশ এর জাতীয় সভাপতি এপেঃ এ্যাড. সৈয়দ নুরুন রহমান ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। দুপুরে একাডেমী স্কুল প্রাঙ্গণে বৃক্ষ রোপন কর্মসুচীতে প্রধান অতিথি নিজ হাতে বনজ, ফলজ ও ঔষধী বৃক্ষ রোপন করেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একাডেমী স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি চিত্ত ঘোষ, নির্বাহী সদস্য আনিস হোসেন দুলাল, প্রধান শিক্ষক শ্রী লক্ষ্মী কান্ত রায় এবং স্থানীয় এপেঃ সদস্যবৃন্দ। -কাশী কুমার দাস