(দিনাজপুর২৪.কম) এইচএসসি পরীক্ষায় কাঙ্ক্ষিত ফল না পাওয়ায় জান্নাতুল নাইমা ইতি নামে এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে।  নিহত ইতির বাড়ি বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার বাঁশতলী গ্রামে। তার বাবা শেখ আবদুল খালেক। গ্রামের একটি কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল সে। রবিবার বেলা ৩টার দিকে  রাজধানীর মগবাজার আমবাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাতে তার মৃত্যু হয়।

নিহতের বোন শারমিন জানান, তাদের তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট ছিল ইতি। ঈদের আগে রাজধানীর বড় মগবাজারের ২৮৮/২ আমবাগানে বড় বোন নাসরিন আক্তারের বাসায় বেড়াতে আসেন জান্নাতুল নাঈমা ইতি।  রবিবার এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়। পরীক্ষায় পাস করলেও কাঙ্ক্ষিত ফল না হওয়ায় সে বাসায় থাকা উকুন মারার ওষুধ (বিষ) খান। অসুস্থ অবস্থায় তাকে বিকাল সাড়ে চারটায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালের ৮০২ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইতি রাত সাড়ে সাতটায় মারা যান বলে নিশ্চিত করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

তার পরিবারের সদস্যরা জানান, বাগেরহাটের রামপাল থানার বাশতলি গ্রামের আব্দুল খালেকের মেয়ে ইতি।

হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু  মিয়া জানান, মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।