(দিনাজপুর২৪.কম) গাজীপুর থেকে রংপুরের পীরগঞ্জের উদ্দেশ্যে খোলা ট্রাকে করে যাত্রা করেছিলেন নিম্ন আয়ের মানুষগুলো। উদ্দেশ্যে পরিবার  পরিজনদের সঙ্গে ঈদ করা। কিন্তু উপজেলার কলাবাগান এলাকায় সেই ট্রাক উল্টে সিমেন্টের বস্তার নিচে চাপা পড়ে মারা গেলেন ১৬ জন। শনিবার ভোর পাঁচটা থেকে সাড়ে পাঁচটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত আটজন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এখন পর্যন্ত এ দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে পাঁচজনের নাম জানা গেছে। তাঁরা হলেন দেলোয়ার (৩০), মনির (২৮),  সাদ্দাম (২৫), আলমগীর (২৭) ও জসীম (২৬)। দুর্ঘটনায় আহত আটজন হলেন রহিমা, জামিলা, ময়না, মমিনুল, খাদিজা, আফরোজা, খলিল ও দুলাল। তাঁদের সবার বয়স ২২ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, হতাহতরা প্রায় সবাই পোষাক শ্রমিক। তাদের সবার গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার  বিভিন্ন গ্রামে। পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম গণমাধ্যমকে জানান, সিমেন্টবোঝাই ট্রাকটি গাজীপুর থেকে রংপুরে যাচ্ছিল। ট্রাকের ছাদে সিমেন্টের বস্তার ওপর বসে ঈদে বাড়ি ফিরছিলেন হতাহতরা। পীরগঞ্জ উপজেলার কলাবাগান এলাকায় চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে ট্রাকটি রাস্তার পাশের একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উল্টে যায়। এতে ট্রাকে থাকা মানুষগুলো সিমেন্টের বস্তার নিচে চাপা পড়েন। ওসি জানান, ঘটনাস্থলে ১১ জন নিহত হন। মিঠাপুকুর উপজেলা স্বাস্থ্য  কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে আরও পাঁচজন মারা যান। -ডেস্ক