(দিনাজপুর২৪.কম) শুরুতে হর্তাকর্তারাও বোধ হয় আশা করেনি আইপিএল এতটা জনপ্রিয় হবে। ২০০৮-এর প্রথম আসরের প্রথম ম্যাচেই ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ঝোড়ো শ​তকে যে উন্মাদনা শুরু হয়েছিল, তার সুফল ভোগ করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। টাকা আর গ্ল্যামারের ছড়াছড়ি। স্বল্প সময়ে তারকা খ্যাতি। ক্রিকেটাররাও আইপিএলের দিকে ছুটে গেলেন পঙ্গপালের মতো। কিন্তু পরে আবিষ্কার হলো, সোনার ডিম পাড়া হাঁস আইপিএল​ কিছু অনর্থের ডিমও পেড়ে রেখেছে। ম্যাচ পাতানো কেলেঙ্কারিতে জেরবার।
শুরু থেকেই আইপিএল উন্মাদনার পাশাপাশি জন্ম দিয়েছে নানা বিতর্কের। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটকে হাস্যোস্পদ করে তুলছে বলে অভিযোগ করেছেন অনেকে। অনেকের কাছে আইপিএল যেমন ইন্ডিয়ান প্যায়সা (পয়সা) লিগ, আবার অনেকেরই কাছে এটি ইন্ডিয়ান প্যারোডি লিগও।
আসুন দেখে নিই নানা সময়ে জন্ম দেওয়া আইপিএলের কিছু বিতর্কিত ঘটনা:

* বিতর্কের শীর্ষে অবশ্যই শ্রীশান্তের গালে হরভজনের চড়! আইপিএলের প্রথম বছরটা স্মরণীয় হয়ে গেছে এই এক ঘটনায়। মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে হারিয়ে দিয়েছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। ম্যাচের পর পাঞ্জাবের শ্রীশান্তের উচ্ছ্বাস মোটেও ভালো লাগেনি মুম্বাইয়ের হরভজনের। জাতীয় দলের সতীর্থের গালে সপাটে চড় মেরে বসেন।

* বলিউড সম্রাট শাহরুখ খান তাঁর কলকাতা নাইট রাইডার্সদের নিয়ে দুবার আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। কিন্তু ২০১২ সালের পর থেকে কিন্তু মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে একবারও ঢুকতে পারেননি। নিরাপত্তার সঙ্গে ঝামেলা বাঁধানোয় এ মাঠে তাঁকে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ করে মুম্বাই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন।
* খুব সহজে পাওয়া তারকাখ্যাতি রবীন্দ্র জাদেজার মাথা ঘুড়ানোর জন্য যথেষ্ট ছিল । তাই ২০১০ সালে রাজস্থান রয়ালের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ থাকা সত্ত্বেও মুম্বাই ইন্ডিয়ানে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। ফলাফল এক বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা।
* স্বল্পবসনা প্রেরণা-বালিকাদের আইপিএলে সম্পৃক্ত করা হয়েছিল বিনোদনের অংশ হিসেবে। পোশাক নিয়ে বিতর্ক উঠে যায় প্রথম বছরেই।
* দক্ষিণ আফ্রিকান ওয়েইন পারনেল আর ভারতীয় রাহুল শর্মাকে ২০১২ এক পার্টিতেই মাদক নেওয়ার সময় গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
* আইপিএলের উত্থানের পেছনে ললিত মোদির কম অবদান নেই। কিন্তু আইপিএলের তৃতীয় সংস্করণের আগে তাঁকে সিংহাসন ছাড়তে হয়। এর পর একের পর দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে।
* সবচেয়ে বড় ভয়টাই সত্যি হলো। ম্যাচ পাতানোর কলঙ্ক! ২০১৩ সালে ৩ জন ক্রিকেটারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে। এর মধ্যে ভারতের জাতীয় দলের সাবেক সদস্য শ্রীশান্তও ছিলেন। কেঁচো খুঁড়তে একে একে বেরিয়ে আসে অজগর থেকে অ্যানাকোন্ডা! শ্রীশান্তসহ বেশ কজন ক্রিকেটার সাজাও ভোগ করছেন।
* সর্বশেষ আজ লোধা কমিটি চেন্নাই সুপার কিংস ও রাজস্থান রয়ালসকে আইপিএল থেকে দুই বছরের জন্য জন্য নিষিদ্ধ করেছে। সেই সঙ্গে ক্রিকেট থেকে দুই দলের কর্ণধাররা হয়েছেন আজীবন নিষিদ্ধ।(ডেস্ক)