(দিনাজপুর২৪.কম) ইতালিতে নতুন বছরে এসে গত ৪ দিন করোনায় মৃত্যুর হার কম থাকলেও মঙ্গলবার ৬৪৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে, যা আগের দিন থেকে প্রায় দ্বিগুণ। গত ১লা জানুয়ারী থেকে ২, ৩, ৪ঠা জানুয়ারী পর্যায়ক্রমে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন ৪৬২, ৩৬৪, ৩৪৭ এবং ৩৪৮ জন। তবে গত ৪ দিনের তুলানায় মঙ্গলবার মৃতের সংখ্যা বেড়ে একদিনের মারা গেছে ৬৪৯ জন।  এদিকে গত কয়েকদিনের আক্রান্তের সংখ্যার চেয়ে মঙ্গলবারের আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। এদিন আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ৩৭৮ জন।

গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এ করোনা ভাইরাসের ভয়াল থাবায় ইতালিতে এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছে ৭৬ হাজার ৩২৯ জন আর আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ১ লাখ ৮১ হাজার ৬১৯ জন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইতালিতে করোনার দ্বিতীয় মহামারীটি তীব্রভাবে আঘাত হানতে শুরু করেছে। তাই করোনা প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা দীর্ঘ করতে হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

এদিকে, গত ২৭শে ডিসেম্বর থেকে প্রায় ১০ হাজার ডোজ প্রথম ব্যাচ কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন আসার পরে প্রয়োগ শুরু করে ইতালি। ইতালির সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলগুলিতে করোনার টিকাদান অভিযানের গতি ত্বরান্বিত করার জন্য কর্তৃপক্ষ লড়াই করছে।

জানা গেছে, ইতালিতে প্রায় ৩০০টি ভ্যাকসিন বিতরণ সাইট থাকবে। টিকা দেয়ার প্রচারণা চরম পর্যায়ে এলে তা বেড়ে ১ হাজার ৫০০ করা হবে।

মিলানের ভার্টিকাল ফরেস্ট আকাশচুম্বী নকশার জন্য বিখ্যাত বোয়েরি বলেছেন, মণ্ডপগুলি সৌরশক্তি দিয়ে চালিত হবে এবং কাঠ ও ফ্যাব্রিকের মতো পুনর্ব্যবহারযোগ্য উপকরণ দিয়ে নির্মিত হবে।

ইতালি সরকার বলছেন,  করোনা সংক্রমণ যাতে না বাড়ে তার জন্যই নতুন বছর উদযাপনকে ঘিরে এই বিধিনিষেধ। ইতিমধ্যেই করোনা টিকাদান চলছে, আশা করছি খুব শিগগিরই আমরা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবো। -ডেস্ক