(দিনাজপুর২৪.কম) কনটেন্ট নির্মাতাদের জন্য খারাপ খবর নিয়ে এসেছে গুগল। তবে এটা শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে ইউটিউব কনটেন্ট নির্মাতাদের জন্য। বিজ্ঞাপন থেকে ইউটিউবারদের আয়ের একটি অংশ রেখে দেবে যুক্তরাষ্ট্র। তবে মার্কিন ইউটিউবাররা কেবল একবারই ওই কর প্রদান করতে হবে। এতে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের ইউটিউবারদের আয় অনেক কমে যাবে।

সম্প্রতি ইউটিউবারদের কাছে পাঠানো এক ই-মেইলে গুগল জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের ইউটিউবারদের প্রাপ্য অর্থ থেকে মার্কিন কর কেটে রাখা হবে। যুক্তরাষ্ট্রের দর্শকদের জন্য যে বিজ্ঞাপন থেকে যে আয় হবে, তার একটি নির্ধারিত অংশ কাটা হবে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ইউটিউবাররা কেবল একবারই কর প্রদান করবেন। আগামী জুন থেকে এ নীতিমালা প্রয়োগ করা হবে বলে জানায় ইউটিউব নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান গুগল।

মে মাসের মধ্যে করের নথিপত্র না পাঠালে বৈশ্বিক মোট আয়ের ওপর ২৪ শতাংশ করারোপ করবে ইউটিউব। যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে করের তথ্য পেশ করা হয়, তাহলে যুক্তরাষ্ট্রের ভিউ থেকে আয়ে ১৫ শতাংশ কর প্রদান করলে চলবে।

ইউটিউবারদের আয়ে কেমন প্রভাব পড়বে এ বিষয়টি সহজ উদাহরণের মাধ্যমেও দেখিয়ে দিয়েছে গুগল। ধরুন বাংলাদেশের কোনো ইউটিউবার ১ হাজার ডলার আয় করল, যার মধ্যে ১০০ ডলার এসেছে যুক্তরাষ্ট্র থেকে। প্রয়োজনীয় করের উপাত্ত পেশ না করলে ২৪০ ডলার (মোট আয়ের ২৪%) প্রদান করতে হবে। কিন্তু করের নথিপত্র পেশ করলে ট্রিটি বেনিফিট পাবে ইউটিউবাররা।

এর ফলে যুক্তরাষ্ট্র থেকে মোট আয়ের ১৫ শতাংশ কর হিসেবে প্রদান করলে ১০০ ডলার আয় থেকে ১৫ ডলার প্রদান করতে হবে বাংলাদেশি ওই ইউটিউবারকে। -ডেস্ক