(দিনাজপুর ২৪.কম) আশুলিয়ায় শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের টেঙ্গুরীর এলাকার কোনাপাড়া আমিয়া মাদ্রাসার পঞ্চশ শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এঘটনায় ধর্ষণ কারি যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার রাতে আশুলিয়ার টেঙ্গুরী এলাকার স্থানীয় রহমানের ভাড়া বাড়িতে এঘটনা ঘটে। ধর্ষনকারী সে জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি থানার চরপাঙ্গলিয়া এলাকার দেগখুস এর ছেলে ।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে টেঙ্গুরীর স্থানীয় কোনাপাড়া আমিয়া মাদ্রাসার পঞ্চশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী হিরাকে (১১) নিজ ভাড়া বাড়ির একটি রুমে পানি খাওয়ার কথা বলে ডেকে নেন এইক বাসার ভারাটিয়া টাইলস মিস্ত্রী সোহেল মিয়া (২৪)। পরে রুমের ভিতর ওই শিক্ষার্থীকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে হাত-পা বেধে ধর্ষন করে। পরে ওই শিক্ষার্থীর মা কাজ শেষে বাড়িতে ফিরলে ধর্ষণের বিষয়টি জানান। এসময় ওই ধর্ষণ কারি টাইলস মিস্ত্রী কৌশলে বিষয়টি টের পেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে এলাকাবাসী তাকে টেঙ্গুরী থেকে আটক করে গণধোলাই করে স্থানীয় শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম আজাহারুল ইসলাম সুরুজ এর কাছে হস্তান্তর করেন। পরে তিনি শুক্রবার সকালে ওই ধর্ষনকারীকে আশুলিয়া থানা পুলিশের কাছে সোর্পদ করে।
এব্যাপারে আশুলিয়ার থানার তদন্ত (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা ঘটনা সত্যা নিশিচত করে বলেন , ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে (ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার) ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।