(দিনাজপুর২৪.কম) প্রথমবার ব্রাজিল থেকে গম আমদানির বিরূপ অভিজ্ঞতার কারণে দেশটি থেকে আর গম আমদানি না করার কথা বলেছেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, এটা আমরা আর আনবো না। এই গম দেখতেই খারাপ লাগছে।শনিবার জাতীয় সংসদে ৩০০ বিধিতে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। আমদানি করা গম পচা বলে গণমাধ্যমে কথা উঠলেও তা এখনও পরীক্ষায় প্রমাণিত নয় উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, কেউ পরীক্ষা করে দেখছে না। আমাদের সৎ সাহস আছে বলে আমরা আবার পরীক্ষা করছি। পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে আমরা প্রয়োজনে এই গম নষ্ট করে ফেলব।

ব্রাজিল থেকে দুই লাখ টন গম আমদানির কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ইউক্রেইন সঙ্কটকে দায়ী করে কামরুল জানান, গত সরকার আমলে ৫ লাখ টন গম আমদানির জন্য ইউক্রেইনের সঙ্গে বাংলাদেশের সমঝোতা হয়েছিল। তিনি খাদ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নেওয়ার পর নতুন করে আড়াই লাখ টন গম আমদানির উদ্যোগ নেওয়া হয়।

মন্ত্রী বলেন, কয়েক দফা মিটিংয়ে দাম ও মান চূড়ান্ত করার পর ইউক্রেইনের সঙ্গে রাশিয়ার পরিস্থিতি খারাপ হতে থাকে। এই সময়ে দেশটি হঠাৎ যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এই সময় বাংলাদেশের গমের মজুদ ৬৮ হাজার টনে নেমে আসায় দ্রুত আমদানির জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়।

কামরুল বলেন, সেখানে সর্বনিম্ন দরদাতা দুই প্রতিষ্ঠান ব্রাজিলের গম দিতে চায়। আমাদের এই গম কেনার অভিজ্ঞতা ছিল না। তবে যে স্যাম্পল আমাদেরকে দেওয়া হয়েছিল, সেগুলো আমরা পরীক্ষা করে দেখি। এই গম লাল ও দানাগুলো ছোট। তিনি বলেন, এই গমে আমাদের অভিজ্ঞতা নতুন হওয়ায় সায়েন্স ল্যাব ও আরও এক জায়গায় পরীক্ষা করিয়েছি। তবে পরীক্ষায় আমরা দেখি, এগুলো খাওয়ার অনুপযোগী নয়।

মন্ত্রী আরও বলেন, এর মধ্যে এই গমের খুবই খারাপ ‍কিছু স্যাম্পল কে বা কারা প্রধানমন্ত্রীকে পৌঁছে দেয়। সেটা দেখে খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রধানমন্ত্রী উষ্মা প্রকাশ করেন। বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে সচিবসহ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন বলেও জানান তিনি। (ডেস্ক)