টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। পুরোনো ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র নানা সময়ে নানা মন্তব্য করে আসেন আলোচনায়। তার সে মন্তব্যে অনেকে সমালোচনা করলেও, অনেকে ক্ষুদ্ধ হলেও তিনি তার ধার ধারেন না। এমনই এক স্বাধীনচেতা, একরোখা শ্রীলেখাকে ফের দেখা গেল। গত বুধবার শ্রীলেখা তার ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল ‘আমি শ্রীলেখা’য় একটি ভিডিও পোস্ট করেন যার শিরোনাম ছিল ‘উইল ইউ ম্যারি মি?’ বা আমাকে তুমি বিয়ে বিয়ে করবে?

ভিডিওতে শ্রীলেখা মিত্রের নানা সময়ের চিত্র ফুঁটে ওঠে। তাতে হার না মানা শ্রীলেখাকে দেখা যায়। নেপথ্যে ছিল নিজের জীবন, জীবন নিয়ে পর্যবেক্ষণ সংক্রান্ত শ্রীলেখার বর্ণনা। সে বর্ণনায় নিজের অনেক কিছুই তুলে ধরেছেন তিনি।

শ্রীলেখা বলেন, ‘ভালোবেসে বিয়ে করেছিলাম সে বিয়ে কোনো কারণে টিকলো না। খুব স্বাভাবিক ভাবেই কষ্ট পেয়েছি কিন্তু কম্প্রোমাইজ বা এডজাস্ট করে বাঁচবো না। তাই আবারও এগিয়ে গেছি।’

তিনি বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই মেয়েদের বোঝানো হয় তারা অসহায়। বাঁচতে গেলে কোনো পুরুষের সাহায্য প্রয়োজন তাদের। আমি এই ভাবনাটাই ভাঙতে চাই। বুঝিয়ে দিতে চাই, আমরা নিজেরা নিজেদের মতো করে বেঁচে থাকতে পারি।’

আক্ষেপ করে শ্রীলেখা বলেন, ‘রিং ফিঙ্গারে কেউ কখনো আংটি পরায়নি। একদিন গাড়িতে যেতে যেতে হঠাৎ এক নামিদামি গয়নার দোকান চোখে পড়ল। ওই ইমপালসিভ আবেগ, ড্রাইভারকে গাড়ি দাঁড় করাতে বললাম, গাড়ি থেকে নামলাম, সোজা ঢুকে গেলাম গয়নার দোকানে। নিজের কষ্টার্জিত অর্থে রিং ফিঙ্গারে একটি দামি ডায়মন্ডের রিং দিয়ে নিজে নিজেকে প্রপোজ করলাম- শ্রীলেখা, উইল ইউ ম্যারি মি?’

অনেক দিন পর্দার বাইরে থাকা শ্রীলেখা আগামী ২৪ জানুয়ারি থেকে শুরু করছেন শর্ট ফিল্ম ‘বিটার হাফ’র শ্যুটিং। এ শর্ট ফিল্মটি পরিচালনার পাশাপাশি অভিনয়ও করেছেন শ্রীলেখা। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো তিনি এলেন পরিচালনায়। -ডেস্ক