মো. নুরুন্নবী বাবু (দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানীর ক্ষেত্রে আরেকদফা মূল্য বাড়িয়ে প্রতি মেট্রিকটন ৭০৫ মার্কিন ডলার করেছে ভারত সরকার। আজ মঙ্গলবার থেকে এই নতুন মুল্য কার্যকর করে প্রজ্ঞাপন জারী করেছে দেশটি। ফলে বাংলাদেশি ব্যবসায়িদের এখন থেকে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বাংলাদেশি টাকায় ৫৬ টাকায় আমদানি করতে হবে।  গতকাল সোমবারও হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ৪৩০ মার্কিন ডলারে পেঁয়াজ আমদানি করেছে বন্দরের ব্যবসায়িরা। ভারতের হিলি কাষ্টমস এক্সপোর্টার এন্ড ক্লিয়ারিং এজেন্টস এসোসিয়েশনের সেক্রেটারী অশোক কুমার মন্ডল জানান, ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে অতিবৃষ্টি এবং বন্যার কারণে পেঁয়াজের উৎপাদন মারাত্মক ব্যাহত হয়েছে। ফলে দেশে পেঁয়াজের দাম হু হু করে বাড়ছেই। দামের এই উর্দ্ধগতি ঠেকাতে সোমবার রাতে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানির ক্ষেত্রে ৭০৫ ডলার করে ভারত সরকার। যা আজ মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) থেকে এই নতুন মূল্য কার্যকর হবে। এদিকে হিলি স্থলবন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি আবুল কাশেম আজাদ জানান, গতকাল রাতে পেঁয়াজের রপ্তানি মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তটি ভারতের ব্যবসায়িরা আমাদের মৌখিকভাবে জানিয়েছে। ফলে আজ থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ৭০৫ মার্কিন ডলারে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানিতে করতে হবে, যা প্রতি কেজিতে আমদানি খরচ পড়বে বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫৬ টাকা।
ব্যবসায়ি এই নেতা আরও জানান, দেশের বাজারে দেশিয় পেঁয়াজ ৬০ টাকা এবং ভারতের পেঁয়াজ ৫৫-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এখন মূল্য বৃদ্ধির ফলে ভোক্তাদের ভারতীয় পেঁয়াজ ৭০ থেকে ৮০ টাকায় কিনতে হবে। দাম অনেক বাড়বে দেশিয় পেঁয়াজের।