( দিনাজপুর ২৪.কম) গত সপ্তাহে একদিনের বিরতির পর আবার টানা তৃতীয় দিনে গড়াল দেশের দুই শেয়ারবাজারের দরপতন। গতকাল সোমবার দেশের দুই শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে। ডিএসইতে ৫০ শতাংশ শেয়ারের দরপতনের বিপরীতে ৩৭ শতাংশের বাজারদর বেড়ে দিনের লেনদেন শেষ হয়। অপর শেয়ারবাজার সিএসইতে ৫২ শতাংশের দর হ্রাসের বিপরীতে বেড়েছে ৩১ শতাংশের।
দিনের লেনদেন পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, সকাল সাড়ে ১০টায় দিনের লেনদেন শুরুর প্রথম মিনিটে লেনদেনে আসা বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর হারায়। এতে ডিএসই-এক্স সূচকটি রোববারের তুলনায় প্রায় ১১ পয়েন্ট কমে ৪৭৭২ পয়েন্টে নামে। শেয়ার চাহিদা সৃষ্টি হলে পরের ৩৬ মিনিট অধিকাংশ শেয়ারের দর বাড়তে থাকে। তবে ১১টা ৭ মিনিটের পর আবারও নিম্নমুখী ধারায় চলে যায় শেয়ারবাজার। যা লেনদেনের শেষ পর্যন্ত অব্যাহত ছিল।
দেশের শীর্ষ ব্রোকারেজ হাউস লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের লেনদেন সম্পর্কে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ের লেনদেন চিত্র বিশ্লেষণে মনে হচ্ছে বিনিয়োগকারীরা সতর্ক বিনিয়োগনীতি অনুসরণ করছেন।
এদিকে বেশিরভাগ শেয়ারের দর কমলেও ব্যাংক খাতের শেয়ারদর ও লেনদেন বৃদ্ধিতে গত কয়েক দিনের তুলনায় বেশ পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। লেনদেন হওয়া ৩০ ব্যাংকের মধ্যে গতকাল ২২টির দরবৃদ্ধির বিপরীতে মাত্র ৩টির দর কমেছে। এ ছাড়া রোববারের তুলনায় লেনদেন প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে ৯১ কোটি ৩০ লাখ টাকায় উন্নীত হয়েছে।
গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩১৮ কোম্পানির শেয়ার, মিউচুয়াল ফান্ড এবং করপোরেট বন্ড।
এর মধ্যে ১১৮টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৫৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪১টির দর। আর সিএসইতে ৮২টির দরবৃদ্ধির বিপরীতে ১৩৭টির দর কমেছে এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৩টির দর। এতে ডিএসই-এক্স প্রায় ১৬ পয়েন্ট হারিয়ে ৪৭৬৮ পয়েন্টে এবং সিএসই-এক্স ৩৪ পয়েন্ট হারিয়ে নেমেছে ৮৯১৫ পয়েন্টে।
উভয় শেয়ারবাজারে এদিন সর্বমোট ৬৫৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়। যা রোববারের তুলনায় ৮৬ কোটি ৩৪ লাখ টাকা বেশি। এর মধ্যে ডিএসইতে ৬১০ কোটি ৪৮ লাখ টাকার এবং সিএসইতে ৪৮ কোটি ৪ লাখ টাকা মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়।
ডিএসইর খাতওয়ারি লেনদেন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গতকাল ব্যাংক খাতের সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে। ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক, বীমা এবং সিমেন্টসহ ছোট খাতগুলোতে ছিল মিশ্রাবস্থা। বিপরীতে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, ওষুধ ও রসায়ন, প্রকৌশল এবং বিবিধ খাতের সিংহভাগ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে।
এ ছাড়া ডিএসইতে পাঁচ কোম্পানির শেয়ার এবং একটি মিউচুয়াল ফান্ড দিনের সার্কিট ব্রেকার নির্ধারিত সর্বোচ্চ দর বা এ দরের কাছাকাছি মূল্যে কেনাবেচা হয়েছে। এগুলো হলো_ এপেক্স ফুডস, আইএফআইসি, শ্যামপুর সুগার মিলস, নর্দার্ন জুট, পূরবী জেনারেল ইন্স্যুরেন্স এবং প্রথম আইসিবি মিউচুয়াল ফান্ড।(ডেস্ক)