(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় বুয়েট ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মো. অনিক সরকার ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শনিবার ঢাকা মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলাম অনিকের জবানবন্দি গ্রহণ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

জানা গেছে, আবরার হত্যাকাণ্ডের বর্ণনার সঙ্গে তার নিজের জড়িত থাকাসহ অপর আসামিদের নাম প্রকাশ করেছেন।

এর আগে মামলাটিতে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের উপ-সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ইফতি মোশাররেফ সকাল ও  ক্রীড়া সম্পাদক মো. মেফতাহুল ইসলাম জিয়নও স্বীকারোক্তি দিয়েছেন।

অন্যদিকে এই মামলায় গ্রেফিতার আবরারের সহপাঠী মাজেদুর রহমান ওরফে মাজেদের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

মামলাটিতে বর্তমানে বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহতামিম ফুয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মো. অনিক সরকার, কর্মী  মুনতাসির আল জেমি, সদস্য মো. মুজাহিদুর রহমান, কর্মী খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, গ্রন্থ ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ইসাতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, মো. মনিরুজ্জামান মনির, আকাশ হোসেন, সাসছুল আরেফিন রাফাত, অমিত সাহা  ও হোসেন মোহাম্মাদ তোহা রিমান্ডে রয়েছেন।

গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে আবরার ফাহাদকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় আবরারের বাবার দায়ের করা মামলায় আসামি করা হয়েছে ১৯ জনকে। -ডেস্ক