bipu_dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণ দেখিয়ে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, ‘সরকার আপাতত জ্বালানি তেলের দাম না কমালেও ভবিষ্যতে কমাবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা চেয়েছিলাম দাম কমাতে। কিন্তু সরকার মনে করছে, এই মুহূর্তে বিশ্বে তেলের দাম যেহেতু বেড়ে গেছে। তাই এই ‍মুহূর্তে কমাচ্ছি না। তবে ভবিষ্যতে আশা রাখি কমবে।’
আজ বৃহস্পতিবার ‘ইয়ং বাংলা’র ফেইসবুক পেইজে সরাসরি সম্প্রচারিত এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। এসময় সিলিন্ডারের গ্যাসের দাম নিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ভবিষ্যতে হয়ত কমে আসবে। কয়েকমাসের মধ্যে আমরা নীতি তৈরি করতে যাচ্ছি।’
ফেইসবুক লাইভে সুন্দরবন থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে রামপালের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়েও প্রশ্নের জবাব দেন প্রতিমন্ত্রী। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার, শেখ হাসিনার সরকার কি এত বড় ঝুঁকি নেবেন যেখানে সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে? অবশ্যই নেবেন না। আপনাদের চিন্তা করতে হবে কী ধরনের প্রযুক্তি আমরা ব্যবহার করছি। বিশ্বের সবচেয়ে আধুনিক প্রযুক্তি আমরা ব্যবহার করছি।’
২০১২ সালে যে তেলের দাম ছিল প্রতি ব্যারেল ১০৫ ডলার, দফায় দফায় কমে এক পর্যায়ে ২০১৬ সালে তা ৩৩ ডলারে নেমে আসে।
যুক্তরাষ্ট্রে গ্যাসোলিনের মজুদ অপ্রত্যাশিতভাবে কমে যাওয়ায় তার প্রভাব পড়েছে তেলের বাজারে। আজ বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দর আরেক দফা বেড়েছে। তবে সরবরাহ বাড়তি থাকায় এ বাজার এখনও চাপে রয়েছে। এ বিষয়ে রয়র্টাসের এক খবরে বলা হয়, এদিন অপেক্ষাকৃত উন্নত মানের ব্রেন্ট ক্রুড শ্রেণির তেল ব্যারেলপ্রতি বিক্রি হয় ৫৫.৪১ মার্কিন ডলার। যা গত কার্যদিবস থেকে দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। এছাড়া ইউএস ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট শ্রেণির তেল বিক্রি হয় ব্যারেলে দশমিক ৫ শতাংশ বেড়ে ৫২.৬০ ডলার। -ডেস্ক