(দিনাজপুর২৪.কম) নানা রকম নাটকীয়তা তৈরি হচ্ছে সদ্য শেষ হওয়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে। নির্বাচন কমিশনার জানিয়ে দিয়েছিলেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচিত কমিটির শপথ অনুষ্ঠান হবে শুক্রবার। তবে গত বৃহস্পতিবার সব চিত্র পাল্টে গেল। শিল্পী সমিতির এবারের নির্বাচনে ওমর সানী-অমিত হাসান প্যানেলের কার্যনির্বাহী সদস্য পদের প্রার্থী রমিজ উদ্দিন আদালতে শপথগ্রহন স্থগিতের আবেদন করায় ঢাকার  জ্যেষ্ঠ্য সহকারি জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক তথ্য উপাত্ত যাচাই করে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান স্থগিতের আদেশ  দেন। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নতুন কমিটির কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর না করার জন্য আদালত অন্তঃবর্তীকালীন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করে। কিন্তু শুক্রবার বিকাল ৩টায় নির্বাচন কমিশনার মনতাজুর রহমান আকবর মানবজমিনকে বলেন, আজ বিকাল ৫টায় এফডিসিতে জহির রায়হান কালার ল্যাব মিলনায়তনে নব নির্বাচিত কমিটির শপথ পাঠ হবে। আর আদালতের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান স্থগিতের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শপথপাঠ গ্রহন অনুষ্ঠানে সবকিছু জানানো হবে। এখন আর কিছু বলতে চাই না। শপথগ্রহন হবে এটাই চুড়ান্ত। উল্লেখ্য, ১১ই মে আদালত থেকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান মনতাজুর রহমান আকবর, আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন দিলু, শিল্পী সমিতির সভাপতি শাকিব খান এবং বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন কুমার ঘোষ বরাবর আদালত এ নির্দেশনা দেন। চিঠিতে জানানো হয়েছে রমিজ উদ্দিন নামের এক অভিনেতা ও প্রযোজক-পরিবেশক শপথ গ্রহন অনুষ্ঠান স্থগিতের আবেদন করেছেন। সে মোতাবেক নির্বাচিত ২১ জন এবং নির্বাচন সংশ্লিষ্ট আরও ৪ জন এ চিঠি পাবেন। উল্লেখ্য, ৫ই মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনের ফলাফল অনুযায়ী বিপুল ভোটে সভাপতি পদে জয়লাভ করেছেন মিশা সওদাগর। তিনি মোট ২৫৯ ভোট পেয়েছেন। আর ওমর সানী পান ১৫৩ ভোট। পরে  ভোট পুনঃগণনার পর ওমর সানী ৯ ভোট বেশি পান। সাধারণ সম্পাদক পদে ২৭৯  ভোট  পেয়ে জয়ী হন জায়েদ খান । তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন অমিত হাসান। তিনি পেয়েছেন ১৪৫ ভোট । -ডেস্ক