সেলিম সোহাগ (দিনাজপুর২৪.কম) পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার আলোয়াখোয়া ইউনিয়নের রাখালদেবী বামন কুমার এলাকায় ধর্ষনের চেষ্টা মামলা লাখ টাকায় রফাদফা করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় ব্যাক্তিবর্গসহ জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে ৯৫ হাজার টাকায় রফাদফা করেছে বলে জানান,পজির উদ্দীন। উল্লেখ্য গত ১৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে বামন কুমার গ্রামের পজির উদ্দীনের ৮ ম শ্রেণী পড়ুয়া কন্যা (১৪) পার্শ্ববর্তী ঢুস মারা পুকুর পাড়ে গেলে একই এলাকার বদিরুল ইসলামের পুত্র সুয়েল রানা (২১)ঐ ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। ছাত্রীর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে ছাত্রী কে উদ্ধার করে।বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য রাজীউল ও রাজু আপোষের কথা বলে সময় ক্ষেপন করে। পরবর্তীতে আপোষ না করে উল্টো ছাত্রীর পিতাকে হুমকি দেয় ধর্ষণ চেষ্টা কারীর পিতা বদিরুল। ঘটনার বিষয় জানতে পেরে স্থানীয় খায়রুল ইসলাম সাংবাদিকদের সহযোগিতায় (১৫ই সেপ্টেম্বর) শনিবারে আটোয়ারী থানায় সুয়েল রানা কে আসামি করে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার এজাহার দায়ের করে ছাত্রীর পিতা পজির উদ্দীন। তারই পেক্ষিতে পুলিশ রবিবার ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিক সত্যতা পায়। ঐ দিন রাতে হুমকি দামকী দিয়ে আসামির লোকজন ও ইউপি সদস্যদ্বয় ৯৫ হাজার টাকা দিয়ে জোর করে রফাদফা করে।এভাবেই যদি অপরাধীরা সমাজে বিভিন্ন অপকর্ম করে পার পেয়ে যায় তাহলে কি গরীবের কোন বিচার নেই ধারনা সুশীল সমাজের।ইউপি সদস্যদ্বয়ের এই হীন অপকর্ম যদি এখনই থামানো না যায় তাহলে সমাজে বিশেষ করে নারী নির্যাতন কোন ভাবে থামানো যাবে না। স্থানীয় অনেকেই ইউপি সদস্য সহ ধর্ষণের চেষ্টা কারী কে আইনের আওতায় আনার দাবী করেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য রাজু ও রাজীউল জানান উভয় পক্ষ প্রতিবেশী তাই বিষয়টা বাড়াবাড়ি না করে ৯৫ হাজার টাকায় আপোষ করে দিয়েছি।
আটোয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান, পজির উদ্দিন বাদী হয়ে একটি এজাহার করেছে সেটা প্রাথমিক তদন্ত ও হয়ে গেছে। কিন্তু মামলা রেকর্ড ভুক্ত হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে কোন কিছু বলেন নাই।