মো. নুরুন্নবী বাবু (দিনাজপুর২৪.কম) অবশেষে ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুরের “বালুরঘাট শুভায়ণ অবজারভেশন হোমে” হেফাজতে থাকা বাংলাদেশি দশ কিশোর দেশে ফিরেছে। আজ বৃহস্পতিবার (৩০.০৩.১৭) বেলা ১২টার দিকে দিনাজপুরের হিলি চেকপোস্ট দিয়ে তাদের ফেরত পাঠিয়েছে ভারতের হিলি চেকপোস্ট অভিবাসন পুলিশ। এ সময় সেখানে বিজিবি, বিএসএফ, মহিলা আইনজীবি সমিতির প্রতিনিধি সহ শুভায়ণের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের পরিবারের কাছে তুলে দেয় বাংলাদেশের হিলি চেকপোস্ট অভিবাসন পুলিশ।
এরা হলেন, পটুয়াখালীর কলাপাড়া গ্রামের মৃত হানিফ হোসেনের ছেলে রয়েল হোসেন (১৭), পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জের ভাউলাগঞ্জ গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে সুজন ইসলাম (১৬), দিনাজপুরের হাকিমপুরের ঘাসুড়িয়া গ্রামের রোস্তম আলীর ছেলে রায়হান কবীর (১৫) ও একই উপজেলার উত্তরবাসুদেবপুর গ্রামের আব্দুল হাকীমের ছেলে সুজন হোসেন (১৬), ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের কাস্তোর গ্রামের মনছের আলীর ছেলে মুকিদুল ইসলাম (১৭), জয়পুরহাটের কালাইয়ের কাজীপাড়া গ্রামের মৃত লুৎফর রহমানের ছেলে জুয়েল কাজী (১৬), চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের চারশেখালীপুরের শহিদুল ইসলামের ছেলে সোহেল রানা (১৭) ও একই জেলা সদরের আব্দুর রহিমের ছেলে জহুরুল ইসলাম (১৭) ও আব্দুল খালেকের ছেলে অসীম আকরাম (১৫) এবং পাবনার চাটমোহরের কদমতলীর শিহাব উদ্দীনের ছেলে এনামুল হক (১৪)।
হিলি চেকপোস্ট অভিবাসন পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. আফতাব হোসেন জানান, “বালুরঘাট শুভায়ণ অবজারভেশন হোমে” হেফাজতে তারা গত এক বছর থেকে দেড় বছর ধরে আটক ছিল এই দশ বাংলাদেশি যুবক। পরে উভয় দেশের সহযোগিতায় ফিরে এসেছে তারা। তারা বিভিন্ন সীমান্ত এলাকা দিয়ে কাজের সন্ধানে ভারতে ঢুকে। এসময় তাদের কাছে বৈধ কোনো কাগজপত্র না থাকায় আটক করে বিএসএফ ও পুলিশ। অবশেষে তাদের ফেরত দেয় ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্তৃপক্ষ।