(দিনাজপুর২৪.কম) পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আগামী ১৩ জুন থেকে ঢাকা-বরিশাল নৌ-রুটে লঞ্চের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। আর ঈদের বিশেষ লঞ্চ সার্ভিস চালু হচ্ছে আগামী ২৩ জুন থেকে। এই বিশেষ সার্ভিসে মোট ১৬টি লঞ্চ যুক্ত হতে যাচ্ছে। এতে করে যাত্রী বিড়ম্বনা অনেকটা কমে আসবে বলে মনে করছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডাব্লিউটিএ) কর্মকর্তারা। আসন্ন ঈদে ঘরমুখী মানুষের জন্য ঢাকা-বরিশাল নৌ-রুটের বেসরকারি লঞ্চগুলোর অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী ১৩ জুন মোতাবেক ১৭ রমজান থেকে। চলবে ১৫ জুন অর্থাৎ ১৯ রমজান পর্যন্ত। ঢাকা থেকে বরিশাল আসা ও বরিশাল থেকে ঢাকায় ফেরার উভয় টিকিট ওই তারিখ বিক্রি করা হবে।
বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির কর্মকর্তা সিদ্দিকুর রহমান জানান, মালিক সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৩ জুন থেকে যাত্রীদের মধ্যে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। এ জন্য ৬ জুন ১০ রমজান থেকে থেকে ৮ জুন ১২ রমজান পর্যন্ত কেবিনের টিকিট প্রাপ্তির জন্য আবেদন গ্রহণ করা হবে। ওই তারিখের পরে আর কোনো আবেদন গ্রহণ করা হবে না। ১৭ রমজান অর্থাত্ ১৩ জুন থেকে ১৫ জুন ১৯ রমজানের মধ্যে আবেদনকারীদের মধ্যে কেবিনের টিকিট বিক্রি শুরু হবে। বরিশাল যাত্রীবাহী লঞ্চ মালিক সমিতির কর্মকর্তা ও সুন্দরবন নেভিগেশনের পরিচালক শহিদুল ইসলাম পিন্টু বলেন, ঢাকা-বরিশাল নৌ-রুটে চলাচলকারী লঞ্চগুলোতে চাহিদার চেয়ে কেবিনের সংখ্যা অনেক কম।
এছাড়া ঈদ-কোরবানিতে কেবিনের সংখ্যার চেয়ে চাহিদা থাকে কয়েক শ গুণ বেশি। ফলে আবেদনকারী সবাইকে কেবিন দেওয়া সম্ভব হয় না। আবেদন যাচাই-বাছাই শেষে লটারির মাধ্যমে যাত্রীদের মধ্যে টিকিট বিতরণ করা হয়ে থাকে। ঈদের সরকারি ছুটিতে ঢাকা থেকে আসা ও ফিরতি টিকিট ১৩ তারিখ ১৭ রমজান থেকে বরিশালের কাউন্টার থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে পারবে। তবে যেসব লঞ্চের বরিশালে কাউন্টার নেই ওই সব লঞ্চের টিকিট সরাসরি লঞ্চ থেকে সংগ্রহ করতে হবে। -ডেস্ক