(দিনাজপুর২৪.কম)কোপা আমেরিকার গ্রুপ পর্বের ম্যাচে আগামীকাল শনিবার কনকাকাফ অঞ্চলের আমন্ত্রিত দল জ্যামাইকা। আর এ দিন জাতীয় দলের হয়ে ক্যারিয়ারের শততম ম্যাচ খেলতে মাঠে নামবে বিশ্ব ফুটবলের নন্দিত সুপার স্টার লিওনেল মেসি। জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচের সেঞ্চুরি পূরণ করতে চললেও এখন পর্যন্ত কোন শিরোপা ঘরে আনতে পারেননি মেসি। বরং একাধিকবার চোখের জলে ভাসিয়েছেন দেশবাসীকে। ভেসেছেন নিজেও। বৃহস্পতিবার আর্জেন্টিনার দৈনিক লা নেসিয়নে দেয়া সাক্ষাৎকারে বার্সেলোনা তারকা বলেছেন, নতুন এই মাইল ফলক স্পর্শ করতে পেরে আমি খুশি। আশা করছি আরো একটি জয় দিয়ে সেঞ্চুরিটি উদযাপন করতে পারব। যার ফলে শিরোপা জয়ের পথটি আরো সুগম হবে।
শুধু মেসি নন, সার্জিও এগুয়েরো, কার্লোস তেভেজসহ দুনিয়া কাঁপানো বর্তমান আর্জেন্টাইন সুপার স্টাররা দীর্ঘ ২২ বছর আর্জেন্টিনাকে বড় কোন শিরোপা এনে দিতে পারেনি। দেশটি সর্বশেষ কোপা আমেরিকার শিরোপা জয় করেছিল ১৯৯৩ সালে। ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট হাঙ্গেরির বিপক্ষে বিরল পারফর্মেন্স দিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেক ঘটে বার্সেলোনা তারকা মেসির। এরপর থেকে আন্তর্জাতিক ফুটবলে দেশকে বড় কোন সফলতা এনে দিতে না পারলেও নিজ ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে অসাধারণ পারফর্মেন্স দেখিয়ে চারবার বিশ্ব ফুটবলের বর্ষসেরা খেলোয়ড়ের খেতাব জয় করেছেন মেসি। এ সময় ক্লাবের হয়ে তিনি চারবার চ্যাম্পিয়ন্স লীগ, সাত বার স্প্যানিশ লীগ এবং তিনবার কোপা দেল রের শিরোপা জয় করেছেন।
হাঙ্গেরির বিপক্ষে অভিষেক ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে বদলী খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন ১৮ বছর বয়সী মেসি। কিন্তু এক মিনিট পরেই লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন তিনি। অপরাধ প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ভিলমোস ভানজাককে হাতের কনুই দিয়ে আঘাত করা। খেলা শেষে ড্রেসিংরুমের এক কোনায় বসে মেসিকে কাঁদতে দেখেছিলেন তার সতীর্থরা।(ডেস্ক)