প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) রাজনীতি আমার জন্য নতুন না হলেও আওয়ামী লীগের মতো বিশাল সংগঠনের দায়িত্ব নিতে হবে এটা কখনও ভাবেননি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

এ সময় ১৯৭৫ এ জাতির পিতাকে হত্যার পরবর্তী প্রেক্ষাপট উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘রাজনীতি আমার জন্য নতুন কিছু ছিল না। স্কুল থেকে রাজনীতি করতাম। দেয়াল টপকে যেতাম মিছিলে, আন্দোলনে যোগ দিতাম। কলেজ জীবনে রাজনীতিতে যুক্ত ছিলাম। কলেজে ছাত্রলীগ গড়ে তোলা, কলেজে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সক্রিয় আন্দোলন করেছি। কিন্তু কখনও ভাবিনি এত বড় সংগঠনের গুরুদায়িত্ব আমাকে নিতে হবে, নিতে পারবো।’

শুক্রবার ( ২০ ডিসেম্বর) ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় বসে করা কোন দল নয়। বাংলার মানুষের যতোটুকু অর্জন সেটা আওয়ামী লীগের সময়ের। জাতির পিতা এদেশের খেটে খাওয়া মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন। এটাই ছিলো তার একমাত্র লক্ষ্য। এই চিন্তার জায়গা থেকেই তিনি বাংলাদেশকে স্বাধীন করে গেছেন। সংগ্রামের মধ্যদিয়ে তিনি অবিসংবাদিত নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন।

তিনি আরও বলেন, জাতির পিতার অসমাপ্ত আত্মজীবনী যদি পড়েন? তাহলে আপনারা দেখতে পাবেন তিনি সারাজীবন কতোটা কষ্ট করে গেছেন। বারবার কারাবন্ধি হয়েছেন। কিন্তু তিনি কখনও মানুষের কল্যাণের পথ ছেড়ে যান নাই। তিনি একটা লক্ষ্য নিয়ে রাজনীতি করেছিলেন। তিনি বাংলাদেশের মানুষকে মুক্তি এনে দেবেন। আর তিনি ওই লক্ষ্যে এগিয়ে গেছেন এবং স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, যিনি ত্যাগ করতে পারেন তিনি রাজনীতিতে সফল হতে পারেন, জাতির জন্য কাজ করতে পারেন। এটাই একজন সফল রাজনীতিবিদের চরিত্র। আর আওয়ামী লীগের নেতারা বারবার এদেশের মানুষের জন্য ত্যাগ করেছেন।

বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, বারবার আওয়ামী লীগের ওপর আঘাত এসেছে। কিন্তু জাতির পিতার হাতে গড়া এ সংগঠনকে কেউ ধ্বংস করতে সফল হয়নি। রাজনীতি আমার জন্য নতুন নয় তবুও আওয়ামী লীগ এতো বড় একটি দল কখনও ভাবিনি আমি তার দায়িত্ব নিতে পারবো। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আমার অবর্তমানে আমাকে সভাপতি নির্বাচিত করে।

জাতির পিতা যদি বেঁচে থাকতেন এ বাংলাদেশ অনেক আগেই উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশে পরিণত হতে পারতো। কিন্তু ৭৫’র ১৫ আগস্টের কারণ সেটা সম্ভব হয়নি। আওয়ামী লীগের ওপর বারবার আঘাত এসেছে। কিন্তু বারবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। মাত্র একদশক, এই একদশকের মধ্যে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে বলেও যোগ করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। -ডেস্ক