সাকিব আল হাসান - ছবি - ইএসপিএন

(দিনাজপুর২৪.কম) গত এক দশক ধরে তিনি শুধু বাংলাদেশ নন, গোটা বিশ্বই শাসন করে চলেছেন তুখোড় অলরাউন্ডার হিসেবে। ব্যাট কিংবা বল, সমান তালে দারুণ ছন্দে তিনি। একটা সময় ক্রিকেটের তিন সংস্করণের র‌্যাঙ্কিংয়ে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার হিসাবে ছিলেন এক নম্বরে। যা ক্রিকেট ইতিহাসে সৃষ্টি করেছিল নতুন মাইলফলক। সেখানে গত এক দশকের সেরা ওয়ানডে একাদশ যখন হবে, সেখানে বাংলাদেশের সাকিব থাকবে না, তা হতে পারে না। আর তাই অনুমিতভাবে সাকিব আছেন। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্তা সংস্থা আইসিসি গত এক দশকের সেরা ওয়ানডে একাদশ বাছাই করেছে। সেখানে কোনো প্রকার শঙ্কা ছাড়াই দাপটের সাথে জায়গা পেয়েছেন সাকিব আল হাসান।

রোববার ছেলেদের গত এক দশকের ওয়ানডে একাদশ ঘোষণা করে আইসিসি। এতে ভারতের সর্বোচ্চ তিনজন জায়গা পেয়েছেন। অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার আছেন দু’জন করে। নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার আছেন একজন করে।

আইসিসির ভোটিং অ্যাকাডেমির সাংবাদিক ও সম্প্রচারকদের ভোটে নির্বাচিত করা হয়েছে এই দল। ১ জানুয়ারি ২০১১ থেকে ৭ অক্টোবর ২০২০ সালের পারফরম্যান্সের ওপর গঠন করা হয়েছে দল।

এই সেরা একাদশের অধিনায়ক ভারতের মহেন্দ্র সিং ধোনি। তার সাথে আছেন তারই স্বদেশী দু’জন, রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আনা হয়েছে ড্যাশিং ডি ভিলিয়ার্সকে। তার স্বদেশী ইমরান তাহির আছেন স্পিনার হিসাবে। পেসার হিসাবে আছেন মিচেল স্টার্ক, ট্রেন্ট বোল্ট ও লাসিথ মালিঙ্গার মতো ভয়ঙ্কর সব বোলার।

আইসিসির দশক সেরা ওয়ানডে একাদশ :

রোহিত শর্মা (ভারত), ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া), বিরাট কোহলি (ভারত), এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), মহেন্দ্র সিং ধোনি (অধিনায়ক, ভারত), বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড), মিচেল স্টার্ক (অস্ট্রেলিয়া), ট্রেন্ট বোল্ট (নিউজিল্যান্ড), ইমরান তাহির (দক্ষিণ আফ্রিকা) এবং লাসিথ মালিঙ্গা (শ্রীলঙ্কা)। -ডেস্ক