ফাইল ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) ভোটার করতে এ বছর ১৮ বছরের নিচে যারা অষ্টম শ্রেণি পাস করেছে বা সমবয়সী ছেলেমেয়ের তথ্য অগ্রিম সংগ্রহ করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল বৃহস্পতিবার ইসি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এতথ্য জানান।ইসি সচিব বলেন, এ বছর আমরা নতুন চিন্তা-ভাবনা করছি। যারা অষ্টম শ্রেণি পাস করেছে, তাদের তথ্য অগ্রিম সংগ্রহ করব। এ নতুন পরিকল্পনা আমরা গ্রহণ করছি। যাতে নতুন ভোটার হওয়ার আগেই তাদের সব তথ্য আমরা পেয়ে যাই। তাহলে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার যে বিড়ম্বনা, তা অনেকটা লাঘব হবে।তিনি বলেন, আমাদের প্রায় ৯০ শতাংশ ছেলেমেয়ে স্কুলে যায়। তাদের তথ্যগুলো আমরা পেয়ে যাব। প্রায় ১০ থেকে ১৫ ভাগ ছেলেমেয়ে স্কুলে যেতে পারে না, তাদের তথ্য আমরা বর্তমান পদ্ধতিতেই সংগ্রহ করব। শুক্রবার ছয়জন ভোটারকে তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) প্রদানের মাধ্যমে এ বছর ভোটার হালনাগাদ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করা হবে।হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘যদিও ১ মার্চ থেকেই জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান শুরু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু উপজেলা নির্বাচন থাকায় আমরা মূলত এ কার্যক্রম শুরু করব এপ্রিল মাস থেকে। তবে আগামী বছর থেকে মার্চ মাসেই নতুন ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রম চলবে। অন্যান্য বছর যেভাবে ভোটার তথ্য সংগ্রহ করা হয়, একইভাবে এ বছরও করা হবে বলেও জানান ইসি সচিব।প্রবাসীদের ভোটার করার জন্য সিঙ্গাপুরকে পাইলট দেশ হিসেবে বেছে নিয়েছে ইসি। ইসি সচিব বলেন, আগামী ৩ মার্চ ইসির একটি প্রতিনিধি দল সিঙ্গাপুর যাবে। তারা প্রবাসীদের ভোটার করার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।বাসী বাংলাদেশি রয়েছে। তাদের মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার নাগরিকের ভোটার আইডি কার্ড নেই। তারা যখন দেশে আসে, তখন তাদের জমি বেচাকেনা, ফ্ল্যাট কেনাবেচা অথবা ব্যাংকে লেনদেন-এসব ক্ষেত্রে অসুবিধা হয়। তারা অল্প দিনের জন্য দেশে আসে, এ সময়ের মধ্যে তাদের পক্ষে ভোটার আইডি করা সম্ভব হয় না অনেক সময়।’উল্লেখ্য, দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী, ১৮ বছর বয়সে একজন নাগরিক ভোটার হন। ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় তাদের তথ্য সংগ্রহ করে থাকে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তবে ভোটার তালিকা আইন সংশোধন করে অষ্টম শ্রেণি পাস ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে কমিশন।-ডেস্ক