(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পোলিট ব্যুরোর অন্যতম সদস্য জননেতা কমরেড নূর আহমদ বকুল বলেছেন চলমান জীবন প্রক্রিয়ায় মার্কবাদ-লেলিনবাদের আদর্শ জীবন্ত অনুশীলন করেই কমরেড অমল সেন একজন সাচ্চা কমিউনিস্ট ও একজন শুদ্ধ মানবপ্রেমি হতে পেরেছিলেন। জীবনকে দখল করে জীবন বিলিয়ে দেওয়ার অনন্য নজীর সৃষ্টি করতে পেরেছিলেন বলেই এই দেশে সমাজ পরিবর্তনে বিপ্লবী রাজনীতির দর্শন দিক্ষার দার্শনীক গুরু ও পথ পদর্শক হতে পেরেছিলেন। তাঁরই সৃষ্টি ওয়ার্কার্স পার্টি তার অনুসারীরা লাল পতাকা হাতে নিয়ে এগিয়ে চলছে।
“বিপ্লব ও বিপ্লবীর মৃত্যু নেই” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আজ শনিবার স্থানীয় নাট্য সমিতির হলে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, দিনাজপুর আয়োজিত উপ-মহাদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা, ঐতিহাসিন তেভাগা আন্দোলনের প্রাণপুরুষ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কমরেড অমল সেন এর জন্ম শত বার্ষিকী উপলক্ষে স্মারণ সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কমরেড আব্দুল হক এর সভাপতিত্বে প্রধান আলোচনা হিসেবে আলোচনা করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড নজরুল ইসলাম হাক্কানী, ওয়ার্কার্স পার্টি ঠাকুরগাঁও জেলার সভাপতি কমরেড অধ্যাপক ইয়াসীন আলী এমপি, বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্ব শাহজাহান শাহ্, কেন্দ্রীয় সদস্য সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন লাবু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি দিনাজপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক হবিবর রহমান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রবীন্দ্রাথ সরেন, পঞ্চগড় জেলার সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক, ঠাকুরগাঁও ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফয়জুল ইসলাম, ছাত্র মৈত্রী কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাকেল সরকার ও দিনাজপুর জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মুজাহিদ সরকার। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন কমরেড রবিউল আউয়াল খোকা। কমরেড বকুল আরো বলেন, বাংলাদেশে চলমান যুদ্ধ অপরাধীদের বিচার, সাম্প্রদায়িক জঙ্গীবাদী তৎপরতা ও সম্রাজ্যবাদের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ১৪ দলীয় জোটের যে লড়াই চলছে তাকে শ্রমিক শ্রেণীর স্বার্থের আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত করতে না পারলে ঐ লড়াইয়ের শেষ বিজয় আসবে না। -(কাশী কুমার দাস)