(দিনাজপুর২৪.কম) রোববার (১৯ জানুয়ারি) ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর করিয়াম্মা আগ্রাহারা হাউজিংয়ে অবস্থিত ছাউনিগুলোতে শতাধিক অস্থায়ী বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়েছে শতাধিক পরিবারকে। গুঁড়িয়ে দিয়েছে ছাউনিগুলো।

আগ্রাহারা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ এ অভিযান পরিচালনা করে। পুলিশের দাবি সেখানে ‘অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসী’রা থাকতো। জমির মালিককে আগেভাগেই জায়গাটুকু খালি করার নোটিশ পাঠানো হয়েছিল।

তবে অধিকারকর্মীরা বলছেন, ওই অস্থায়ী বাড়িগুলোতে বসবাসরত মানুষেরা কর্ণাটকের বিভিন্ন অংশ এবং দেশের উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে আগত। তারা এলাকায় গৃহকর্মী, নির্মাণ শ্রমিক ও প্রহরী হিসেবে কাজ করতো।

ব্যাঙ্গালুরুতে অবকাঠামোগত সংস্কারের দায়িত্বে থাকা প্রশাসনিক বিভাগ ব্রুহাট ব্যাঙ্গালুরু মহানগর পালিক (বিবিএমপি) এই অভিযানের নির্দেশ দেয়। অভিযানটির তীব্র নিন্দা জানিয়ে অ্যাডভোকেট ও অধিকারকর্মী বিনয় শ্রীনিবাস বলেন, রোববার করিয়াম্মা আগ্রাহারায় দুই শতাধিক বাড়ি ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে।

সাদা পোশাকের লোকজন এসে বাড়িঘর ভাঙার কাজ করেছে। তারা নিজেদের মারাঠাহালি পুলিশ বিভাগের সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়েছে। দাবি করেছে, বিবিএমপি কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার খাতিরে তারা সেখানে গেছে। যদিও, সেখানকার আশেপাশেও কোনো বিবিএমপি কর্মকর্তা উপস্থিত ছিল না।

শ্রীনিবাস বলেন, এই পদক্ষেপের পেছনে কারণ জানতে চাইলে তারা জানায় যে, সেখানে অবৈধ বাংলাদেশিরা বাস করে তাই এমনটি করা হচ্ছে। তাদের এ কাজের জন্য পরোয়ানা নিয়ে আসার কথা বলার পরে তারা কাজ থামায়। যদি সেখানে অবৈধ বাংলাদেশিরা থাকে তাহলে পুলিশের আগে তাদের চিহ্নিত করতে হবে ও পরে অ্যাকশন নিতে হবে। এজন্য এতগুলো বাড়ি কেন ধ্বংস করার প্রয়োজন পড়লো। এদিকে, এ বিষয়ে বিবিএমপি ও পুলিশের কাছে যোগাযোগ করা হলে তারা মন্তব্য করতে অস্বীকৃতী জানায়। -ডেস্ক