(দিনাজপুর২৪.কম) অবশেষে ব্যাটে ছন্দ ফিরে পেলেন সাকিব আল হাসান। গুজরাট লায়ন্সের বিপক্ষে তার দল ৫ উইকেটে হারলেও সাবিক ছিলেন দুর্দান্ত। ভারতীয় প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) চলতি আসরে মোটেও ছন্দ পাচ্ছিলেন না বাংলাদেশের এ অলরাউন্ডার। রোববারের আগে পাঁচ ম্যাচে ৩ ইনিংস ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে করেন মোট ২০ রান। তাকে ওয়ানডাউনে নামিয়েও সুফল পাননি অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর। এটা নিয়ে বেশ চিন্তায় ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। কিন্তু সেই সাকিব ফিরলেন চেনা ছন্দে। এদিন কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে টস হেরে আগে ব্যাটে গিয়ে ৪ উইকেটে ১৫৮ রান করে কলকাতা। এতে বড় অবদান সাকিবের। মাত্র ২৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে খাবি খাচ্ছিল কলকাতা। কিন্তু এ সময় সাকিব আল হাসান ও ইউসুফ পাঠান দলকে উদ্ধার করেন। পঞ্চম উইকেটে ১৪.১ ওভারে ১৩৪ রানের জুটি গড়ে অবিচ্ছিন্ন থাকেন তারা। ৪ ছক্কা ও ৪ চারে ৪৯ বলে ৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন সাকিব। আর পাঠান অপরাজিত থাকেন ৪১ বলে ৬৩ রানে। শুরুটা ধীরেসুস্থে করেন সাকিব। প্রথম ৩৩ বলে করেন ৩৩ রান। কিন্তু এরপর খোলস থেকে বের হন। ডোয়াইন ব্রাভোকে টানা দুই ছক্কা হাঁকিয়ে হাত খোলেন। এরপর ৪১ বলে পূর্ণ করেন ফিফটি। শেষ পর্যন্ত ১৩৪.৬৯ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট করে অপরাজিত থাকেন। অথচ এই সাকিবকে এদিন দলে রাখা নিয়েই কলকাতার সমর্থকরা ছিল বিভক্ত। টানা ব্যর্থতার করণে তাকে দলে রাখার পক্ষে ছিলেন না অনেকে। তার বদলে লিনকে দলে রাখলে ভাল হতো বলে তাদের ধারনা ছিল। নাইট রাইডার্সের সমর্থকদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এমনটা বলছে। এছাড়া জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ‘ক্রিকইনফো’ সাকিবকে নিয়ে বিতর্কের খবর দিলো। সাকিবকে একাদশে রাখার পর তাদের লিখিত ধারাভাষ্যে লেখে, ‘সাকিবকে নিয়ে বিভিন্ন মতামত’। এরপর বিভিন্ন জনের মতামত তুলে ধরে তারা। সেখানে অধিকাংশ কলকাতার সমর্থক সাকিবের বদলে লিনকে দলে রাখার ব্যাপারে প্রত্যাশা করেছিলেন বলে জানান। তবে সাকিবের পক্ষেও অনেকে মত দেন। এক্ষেত্রে তার অভিজ্ঞতাকেই তারা মূল্যায়ন করেন। সাকিবের এমন দুর্দান্ত রানে ফেরার পেছনে অনেকে দেখছেন তার গুরুর পরামর্শ। দিনদিন আগে হুট করেই বাংলাদেশে ফেরেন সাকিব। কাউকে বুঝতে দেননি তিনি। বাসায় ফিরেই চলে যান প্রথম কোচ সালাউদ্দিনের কাছে। তাকে নিয়ে তিনি মিরপুর স্টেডিয়ামে ব্যাটিং অনুশীলন করেন। গুরুর কাছ থেকে বিভিন্ন পরামর্শ নেন। ব্যর্থতা থেকে বের হওয়ার পরামর্শ নেন তিনি। এরপর ম্যাচের শনিবার অনেকটা গোপলে বাংলাদেশ থেকে কলকাতায় যান। গুরুর এই টিপসেই সাকিব স্বরূপে ফিরেছেন বলে অনেকে মনে করছেন। -ডেস্ক