(দিনাজপুর২৪.কম) পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার পুরুলিয়া শহর থেকে ১১ কিলোমিটার দূরে ভাঙড়া নবকুঞ্জ ময়দানে জনসভা করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গত বিধানসভা নির্বাচনে এই পুরুলিয়াতে ভাল ফল করেছিল তৃণমূল। জেলার ৯টি বিধানসভার মধ্যে ৭টিই তারা দখল করে। ২টি আসন পায় কংগ্রেস। শূন্য হাতে ফিরতে হয় বিজেপিকে। কিন্তু লোকসভা ভোটে সেই হিসেব পাল্টে যায়। পুরুলিয়া লোকসভা আসনটি দখল করা ছাড়াও এই লোকসভা কেন্দ্রের অধীনে ৭টি বিধানসভাতেও তৃণমূলকে পেছনে ফেলে এগিয়ে বিজেপি। এবার তা নিজের করে রাখতেই আসরে নামলেন মোদি।

জনসভা থেকে বললেন- ‘অনেক খেলেছেন দিদি, এবার খেলার শেষ হবে বিকাশ শুরু হবে।’

জনসভায় এদিন ঠিক কি কি বলেছেন মোদি তা নিয়ে সেখানকার গণমাধ্যমে চলছে চুলচেড়া বিশ্লেষণ। জেনে নেয়া যাক মোদির বক্তব্যের সারসংক্ষেপঃ

*কাজের হিসেব দিতে হবে দিদিকে। বিজেপি সরকার আসলে এই সব কাজ করবে। মানুষের সেবা করাই বিজেপি সরকারের কাজ। বাংলাতেও জল সঙ্কট মেটানোর কাজ আমরা করবো।
*এত বছরে একটা সেতুও তৈরি হয়নি। অনগ্রসর, আদিবাসী, পিছিয়ে পড়া শ্রেণির জন্য মমতা দিদির নির্মম সরকার জঙ্গলমহলের মানুষের থেকে পয়সা লুট করছে। কয়লা মাফিয়া, বালি মাফিয়া কারা তা বাংলা জানে। দিদির সরকার মাওবাদীদের প্রশয় দেন সরকারে টিকা থাকার জন্য। আর সেই জের পোহাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষদের।
*মোদী বাংলায় বলেন, ‘অত্যাচার অনেক করেছ দিদি, ভয় দেখিয়েছ, এবার মা দুর্গার আশীর্বাদে বাংলার মানুষ পরাস্ত করবে তোমাকে। বাংলায় সিন্ডিকেট, কাটমানি, তোলাবাজিদের পরাজয় হবে। তৃণমূলের এখন হাতে গোনা সময় রয়েছে। মমতা দিদি সেটা জানেন। তাই উনি বলছেন খেলা হবে, খেলা হবে।”
*বাংলার মানুষের উন্নয়ন না করে বলছেন খেলা হবে। এর সাজা মানুষই দেবে। ১০ বছরে যা যা করেছেন তার উত্তর দেবেন। দুর্নীতির সাজা দেবেন বাংলার মানুষ। কলকাতার ব্রিগেডের পর উনি কী কী করছেন বাংলার মানুষ শুধু নয় দেশের মানুষও দেখছেন। উনি হারের ভয় পাচ্ছেন। আপনি খেলতে থাকুন দিদি। অনেক খেলেছেন দিদি, এবার খেলার শেষ হবে বিকাশ শুরু হবে।’

*দিদিও বাংলার মেয়ে, দেশের মেয়ে। ওর সম্মান রক্ষা করা আমাদেরও দায়িত্ব। মমতা দিদির যখন চোট লাগে আমাদেরও চিন্তা হয়। আমি ভগবানের কাছে প্রার্থনা করছি যে উনি সুস্থ হয়ে উঠুন তাড়াতাড়ি। বাংলা তখনই অগ্রগতি দেখবে যখন সকলে এক যোগে কাজ করবে। কিন্তু বাংলায় সেটা হয় না।

*বাংলার প্রশাসনকে বলবো, গণতন্ত্র যেন বজায় থাকে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে আইনের শাসন ফিরিয়ে আনা হবে। ২ মে দিদি যাচ্ছে, আসল পরিবর্তন আসছে। এই বার ভয় নয়, শুধু জয়। -ডেস্ক