(দিনাজপুর২৪.কম) প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুল ছাত্রীর দুহাতের কনুইয়ের নিচে ব্লেড দিয়ে আঘাত করে ক্ষত-বিক্ষত করেছে কথিত প্রেমিকের বখাটে বন্ধুরা।এ ব্যাপারে রোববার জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার নদী তীরবর্তী চরাঞ্চল চুকাইবাড়ি হলকারচর গ্রামের বাদশা মিয়ার মেয়ে দেওয়ানগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী বিথি আক্তার স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছিল। পথে রামপুরা সড়কে অটোরিকশা থামিয়ে ছাত্রীকে টেনে হিঁচড়ে সড়কে নামিয়ে জোর করে কোমল পানীয় খাওয়ানো হয়। স্কুল ড্রেসের উপর সাদা অ্যাপ্রোন খুলে নিয়ে বখাটেরা ছাত্রীর দুহাতের কনুইয়ের নিচে ব্লেড দিয়ে আঘাত করে ক্ষত বিক্ষত করে।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি একেএম আমিনুল হক জানান. ছাত্রীটিকে বিপ্লব নামে এক ছেলে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল বেশ কয়েকবার। বিথি এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় বিপ্লবের সহযোগীরা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় বিপ্লব হোসেনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ছাত্রীর পিতা বাদশা মিয়া বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।বিপ্লবের বাড়ি একই ইউনিয়নের বালুগ্রামে। সে কেরানীগঞ্জে পোশাক শ্রমিক বলে তিনি জানান।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দেওয়ানগঞ্জ সার্কেল মুসতাক সরকার জানান, পুলিশ অফিসাররা আসামিদের গ্রেফতারের জন্য মাঠে রয়েছে।এ ঘটনায় দেওয়ানগঞ্জ ছাত্রী অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়াছে।-ডেস্ক